নড়াইলে মিথ্যা মামলায় জর্জারিত  বিপ্লব হাসানের সংবাদ সম্মেলন

মোল্লা অবাইদুর: নড়াইল প্রেসক্লাবে  বিপ্লব  হাসান নামক এক ব্যাক্তি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।প্রথমে বিপ্লব  হাসান তার লিখিত বক্তব্য উপস্থিত সাংবাদিক ও গন্যমান্য ব্যাক্তিদের মাঝে পড়ে শোনান,সেখানে সে উল্লেখ করেন নড়াইল বাহির গ্রামের শুধে কারবারি প্রতারক ও বহু বিবাহের হোতা তানিয়ার মিথ্যা মামলায় জর্জারিত হয়ে আজ আমি আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। তানিয়া নিজে একজন শুধে ব্যাবসায়ি, সে শুধে ব্যাবসার প্রয়োজনে জুয়েল মোল্লার নিকট হইতে ৫ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা ধার নেয় বিনিময়ে তানিয়া তার দুলাভাই আমিনুরের ব্যাংক একাউন্টের চেক প্রদান করে। কিন্তু চেকে উল্লেখিত সময়ের মধ্যে পাওনা টাকা পরিশোধে তানিয়া ব্যার্থ হওয়ায় জুয়েল চেক ডিজ অনার মামলা করেন।ক্ষতিগস্থ জুয়েল যখন পাওনা টাকার জন্য কোর্টের দারে দারে ঘুরছে ঠিক তখনই তানিয়া আমাকে সহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মিথ্যা মামলা দ্বায়ের করেন যে মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা আমাকে সহ তিনজনকে চূড়ান্তভাবে অব্যবহিত দেয়।সত্য প্রতিবেদন তানিয়ার পক্ষে না যাওয়া নতুন সড়জন্ত লিপ্ত হয়ে নিজের পিঠে এসিড মেরে আমাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করে মিথ্যা মামলা করে, যা সি, আই, ডি পুলিশের তদন্তাধীন আছে।এদিকে মিথ্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন তানিয়ার পক্ষে না যাওয়ায় নড়াইল প্রসাসনের বিগত দিনের সুনামধন্য বিভন্ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নতুন সড়জন্ত্রে লিপ্ত হয়ে পড়েছে।

পরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বিপ্লব  হাসান বলেন এখানে আমার বাহিরগ্রাম ইউনিয়ের সুযোগ্য চেয়ারম্যান সাহেব উপস্থিত আছেন তিনিউ জানেন তানিয়া কতটা দ্রুত প্রতারক শুধে কারবারি এবং টাকার জন্য সে সবই করতে পারে, সে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান দাবি করলেও সরকারি তালিকায় আমার গ্রামে একজন মুক্তিযোদ্ধাও নেই বলে বিপ্লব  হাসান দাবি করেন।

এমতা অবস্থা সাংবাদিকদের নিজ নিজ পত্রিকায় সত্য সংবাদ প্রকাশের অনুরোধ জানিয়ে লিখিত সংবাদ সম্মেলন পাঠদান শেষ করেন ভুক্তভোগী বিপ্লব   হাসান।