লাখ টাকা ব্যায়ে কাঁদা রাস্তা সংস্কার করে দিলেন রাজু আহম্মেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক,রুপদিয়া,যশোর: ব্যক্তিগত উদ্যোগে এবার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নের ছিলুমবাড়িয়ার কাঁচা রাস্তায় লক্ষ টাকার ইট ও ঘ্যাম ফেলে যাতায়াতের সুব্যবস্থা করে দিলেন রূপদিয়ার সেই তরুণ ব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদ।

আরো সংবাদ পড়ুন –যশোরের নরেন্দ্রপুরে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন রাজু আহম্মেদ

ছিলুমবাড়িয়ার ফজলে করিমের বাড়ির সামনে থেকে এই রাস্তাটি প্রায় সারা বছর জুড়ে কাঁদামাটি হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে থাকে। রূপদিয়া বাজার হয়ে শাখাঁরীগাতী স্কুলের সামনে দিয়ে ছিলুমবাড়িয়া হয়ে এই রাস্তাটি পার্শবর্তী প্রেমবাগ ও ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের অঞ্চল গুলোর সাথে যুক্ত হয়েছে। এতদা এলাকার যোগাযোগের একমাত্র রাস্তাটি নরেন্দ্রপুর-ছিলুমবাড়িয়ার ফজলে করিমের বাড়ির সামনে থেকে অন্তত ৫টি স্থানে বর্ষার পানি জমে ব্যাপক কাঁদার সৃষ্টি হয়ে থাকে। যাতে করে পথচারীরা ব্যাপক ভোগান্তীতে পড়ে। স্থানীয়দের মাধ্যমে জনদূর্ভোগের কথা রূপদিয়া এলাকার তরুণ ব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদের কানে গিয়ে পৌঁচ্ছায়। গত সোমবার অবহেলিত এই রাস্তাটি দেখতে যান। স্থানীয়দের আশ্বাস্ত করেন দ্রুত সমাধানের। যেই কথা সেই কাজ মাত্র ২৪ ঘন্টার মধ্যে উক্ত রাস্তার জন্য এক লক্ষ টাকার আদলা ইট ও ঘ্যাস ফেলে চলাচলের উপযোগী করে তোলেন। একের পর এক তার এই করেন দ্রুত সমাধানের। যেই কথা সেই কাজ মাত্র ২৪ ঘন্টার মধ্যে উক্ত রাস্তার জন্য এক লক্ষ টাকার আদলা ইট ও ঘ্যাস ফেলে চলাচলের উপযোগী করে তোলেন। একের পর এক তার এই ধরনের উদ্যোগে এলাকাবাসীর কাছে বেশ জনপ্রিয় জনদরদী হয়ে উঠেছেন তরুণ এই বব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদ। উল্লেখ্য রাজু আহম্মেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কাওছার এন্টারপ্রাইজ ও কাওছার ট্রান্সপোর্টসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে অন্তত ৪০-৫০ জন যুবকের কর্মসংস্থান করেছেন। সম্প্রতি তিনি যশোর সদরের নরেন্দ্রপুর দফাদারপাড়া জামে মসজিদে যাতায়াতের একমাত্র কাঁচা রাস্তা, গোপালপুর পশ্চিমপাড়ার হামিদ গোলদারের বাড়ির সামনে থেকে নাজমুলের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সহ ছিলুমবাড়িয়ার একাধিক রাস্তা সংস্কার করে দেন। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদ বলেন, মানুষের চলাচলের কষ্ট ও দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে ও আমি এ ইউনিয়নের সন্তান হিসেবে ব্যক্তিগত উদ্যোগে যথা সম্ভব অবহেলিত রাস্তগুলো মেরামত করার চেষ্ট করছি।