মীরসরাই ইকোনমিক জোন এলাকায় আনসার সদস্য কর্তৃক চাঁদাবাজির অভিযোগ

মো:মজিবুলহক(জোরারগঞ্জ)মীরসরাই: মীরসরাই এর ইছাখালীর চরাঞ্চলে ৩০হাজার একর ভূমিতে নির্মাণাধীন দক্ষিণ এশিয়ার সর্ব বৃহত্তম শিল্প জোন মীরসরাই ইকোনমিক জোন বা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরী, যেথায় হতে যাচ্ছে ৩০লক্ষ লোকের কর্মসংস্থান। মীরসরাই ইকোনমিক জোন এর সপ্ন দ্রষ্টা: মীরসরাই মাটি ও গণমানুষের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা চট্টগ্রাম নির্বাচনী আসন ০১ মীরসরাইয়ের সাংসদ সাবেক মন্ত্রী আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি এবং ২৮ই ফেব্রুয়ারী রোববার ২০১৬ খৃস্টাব্দে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে এই উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন গনতন্ত্রের মানসকন্যা (প্রধানমন্ত্রী) জননেত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরী পার্শ্ববর্তী ইছাখালী তথা অন্যান্য এলাকার লোকজন সংরক্ষিত এলাকা ছাড়াও জোন কর্তৃক নির্মিত মেইন সড়ক দিয়ে জেলে, চাষী, দর্শনার্থী এবং সাধারণ মানুষরা যাতায়াতে অর্থনৈতিক অঞ্চলে দ্বায়িত্বরত আনসারকে দিতে হয় ৩০০ থেকে ৫০০টাকা পর্যন্ত চাঁদা! নাহয় দর্শনার্থী এলাকার সাধারণ মানুষদের চলাফেরায় আনসার কর্তৃক প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে, সাধারনের অভিযোগ আনসারদের চাঁদা দিলে সমস্যা নেই, নাহয় ঐ পথ ব্যবহারে তারা কানুন দেখায়! এলাকার অনেক জেলে বর্গাচাষীদের কাছ থেকেও জোরপূর্বক রবিউল হুসাইন ও জিল্লুর রহমান সহ তাদের বাহিনীর সহকর্মীরা চাঁদা নিতেছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দা ইসমাইল ও মহিউদ্দিনের।

ইছাখালী নিবাসী নৌ-পরিবহণ মাস্টার মেজবা উদিন জানানঃ আমাদের ইছাখালী চরাঞ্চলকে ব্যবহার করে গড়ে উঠতেছে এশিয়ার সর্ব বৃহত্তম শিল্প জোন বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরী যা আমাদের জন্য একটি গর্বের বিষয় কিন্তু এই ইকোনমিক জোন নির্মাণের জায়গা পড়ে অনেক চাষী জমি এবংকি অর্থনৈতিক অঞ্চলের সড়ক নির্মাণের ফলে অনেকের বাড়িঘরও সরাতে বাধ্য হয় এবং অনেক বর্গাচাষিরা যারা বর্তমানে বেকার কেহবা কর্ম হারিয়ে জেলের কাজও করছে, যে কথা না বললে নয়ঃ জোন এবং জোন সড়কে যাদের বাড়ি এবং জমি পড়ছে তাদের কিছুকিছু অর্থ প্রদান করে যাতে অনত্র সরে যায়, তারপরেও ৯০ভাগ এলাকাবাসীর অভিযোগ তারা তাদের জমির টাকা পাইনি, পরিশেষে জনাব মেজবা আনসারদের দুর্নীতির ব্যাপারে অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধরীর ও মীরসরাই বাসীর অভিভাবক ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এর দৃষ্টি আকর্ষণ এবং হস্তক্ষেপ কামনা করেন।