চাকরীটা ছিল বলেই: মফিজুল ইসলাম, পিপিএম

চাকরীটা ছিল বলেই
মফিজুল ইসলাম, পিপিএ
চাকরীটা ছিল বলেই
কারও ছেলে না হয়েও বাবা ডাক শুনি
অসহায় পিতা-মাতা কাছে এসে বলে
তুমি আমার ছেলের মতই
চাকরীটা ছিল বলেই।।

চাকরীটা ছিল বলেই
কারও মামা না হয়েও মামা ডাক শুনি
কোন এক খাবার হোটেলে
হোটেল বয় দেখে বলে
এই মামা এসেছে, টেবিলটা ভাল করে মুছ
যত্ন করে খাবার খাওয়া
চাকরীটা ছিল বলেই।।

চাকরীটা ছিল বলেই
চাকর হয়েও আজ অনেকের স্যার
সবজি, মাছ, মাংস ও কাপড়ের দোকানে
আমাকে দেখে বলে
এই স্যার এসেছে, এক কাপ চা নিয়ে আয়
বসেন স্যার, কি নিবেন
পছন্দ হলে বলে
এর দাম বাজারে এত টাকা
আপনার জন্য এত টাকা কম স্যার
চাকরীটা ছিল বলেই।।

চাকরীটা ছিল বলেই
কারও আপন ভাই না হয়েও
অনেকের ভাইয়ের আসনে আমি
বাসে আরোহন করে চলার পথে
ভাড়া দেওয়ার জন্য পকেটে হাত দিতেই
সুপারভাইজার বলে লাগবে না ভাই
চাকরীটা ছিল বলেই।।

চাকরীটা ছিল বলেই
করোনা আতংকে
সবাই যখন ঘরে বন্দী
পিপিই ছাড়া এই আমিই তখন
অসহায় মানুষের পাশে হাত বাড়িয়ে
মানুষের প্রসংশা কুড়াই
চাকরীটা ছিল বলেই।।

এত সম্মান, এত ইজ্জত
এই চাকরীতে ভাই,
সামান্য লোভে কেন আমি
ঘুষ, দুর্নীতিতে জড়াই।
এসো প্রতিজ্ঞা করি
মানুষের তরে মানুষ আমরা
হৃদয় মাঝে বেঁচে রব আজীবন
ঘুষ দুর্নীতি ছাড়া।।