বেনাপোলে নির্মানধীন বাড়ি ভাংচুর,থানায় অভিযোগ 

মোঃ নজরুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধিঃ বেনাপোল পৌরসভার সামনে নির্মানাধীন একটি বাড়ির কাজের সময় লিংটন সহ ইটের গাথুনি ভেঙ্গে ফেলা সহ মারধরের আভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী ওসমান আলীর বিরুদ্ধে। এই বিষয়ে সোমবার রাতে বেনাপোল পোর্ট থানায় ওসমান আলীকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী উম্মে কুলসুম হীরা।
সোমবার (১৯ ই এপ্রিল) বিকালে বেনাপোল পৌরসভার সামনে অবস্থিত হীরা বিউটি পার্লারের স্বত্বাধিকারী হীরার নির্মানাধীন বাড়িতে হামলা করেন তার প্রতিবেশী ওসমান আলী ওরফে ফটোকপি ওসমান।
ভুক্তভোগী হীরা জানান, বসবাসের জন্য তিনি গত ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে বেনাপোল মিনা বুক হাউজের স্বত্বাধিকারী হামিদের নিকট হইতে ২ শতক ২০ পয়েন্ট জমি ক্রয় করেন। এবং এই জমি ক্রয় করার পর থেকেই তার পাশ্ববর্তী জমির মালিক ওসমান আমাকে বিভিন্ন ভাবে চাপ দিতে থাকে তার কাছে জমিটি বিক্রির জন্য।
কিন্তু আমার বহু কষ্টে অর্জিত টাকা পয়শা দিয়ে ক্রয় করা এই জমিটি ছাড়া আর কিছুই নেই সে জন্য আমি বিক্রি করবো না বলে সাফ জানিয়ে দেই তাকে। কিন্তু সে আমার পিছু ছাড়ে না।
গতকাল সোমবার বিকালে ইফতারের আগে আমি আমার ক্রয়কৃত জমিতে নির্মানাধীন বাড়িতে রাজ মিস্ত্রিদের কাজ দেখতে গেলে আমার কাছে এসে বলে তোর বাড়ি করতে দেব না। এই বলে নির্মানাধীন কাজের লিংটন সহ ইটের গাথুনি ভেঙ্গে ফেলে ওসমান,পরে আমি বাঁধা প্রদান করলে আমাকে বাঁশ দিয়ে আঘাত করে আহত করা হয়েছে। আমি মহিলা মানুষ বিধায় আমাকে মার খেতে হয়েছে বলে জানাচ্ছিলেন ফেসবুক লাইভে এসে। বর্তমান ভুক্তভোগী হীরা শার্শা উপজলো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।তিনি এই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করেছেন।
এ বিষয়ে ওসমান আলীকে মুঠোফোনে উক্ত ঘটনার ব্যপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, আমার ৪শতক জমির পাশে হীরা ২ শতক জমি ক্রয় করে বিল্ডিং নির্মান করছেন কিন্তু যাতাযাতের রাস্তার জন্য যে জমি ছাড়ার কথা সেটা তিনি না ছেড়েই ইটের গাঁথুনি দিয়ে লিংটন ঢালাই দিয়েছেন যেটা চলাচলের রাস্তার ওপর চলে এসেছে এজন্য আমি উক্ত লিংটন ঢালায়ের বাঁশ সরিয়ে দিলে নির্মানাধীন অংশ ভেঙ্গে পড়ে। হীরাকে বাঁশ দিয়ে আঘাতের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন এমন কোন ঘটনা সেখানে ঘটেনি। যদি আপনাদের কাছে বলে থাকে সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।
বেনাপোল পোর্ট থানার সহকারী পুলিশ পরিদর্শক মুরাদ শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, থানায় অভিযোগ হয়েছে ঘটনা স্থল পরিদর্শন সহ স্থানীয়দের সাথে কথা বলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।