সাতক্ষীরা বড় ভাইয়ের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

এস এম পলাশ,সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ  আপন বড় ভাইয়ের সম্পত্তির ভাগ নিতে না পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে ভাইদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা হয়রানি মূলক সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে জনার্কীন সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আশাশুনির পিরোজপুর গ্রামের সত্যরঞ্জন ঢালীর স্ত্রী ঊষা রাণী ঢালী।

তিনি বলেন, আমার প্রয়াত শ^শুর বীরেন্দ্র নাথ ঢালীর তিনপুত্র। পিতার মৃত্যুর পর ৩পুত্র ওয়ারেশ থাকেন। ইতোমধ্যে আমার ভাসুর সুকুমার ঢালীর পিরোজপুর মৌজায় এস এ ১২৮, ১৪৪ ও ৩৬নং খতিয়ান এবং দূর্গাপুর মৌজায় এস এ ৩০, ৩৫ ও ৫৩ নং খতিয়ানে সর্ব মোট ৬২ শতক সম্পত্তি গত ৯ এপ্রিল‘২০১৫ তারিখে আশাশুনি রেজিষ্ট্রি অফিসে হাজির হয়ে তার ভাগের ৬২ শতক সম্পত্তি ১২৭২ নং কোবলা দলিলে আমার স্বামীর নামে রেজিষ্ট্রি করে দেন। স্বাক্ষী হিসেবে শুশান্ত ঢালী, মনীন্দ্র নাথ ঢালী, কালিপদ ঢালী, কংকন ঢালী, মানবেন্দ্র সানা, চিত্ত মন্ডল, খালিয়া গ্রামের তারক সানা ও মুর্শিদ গাজীসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। রেজিষ্ট্রির পর আমরা উক্ত সম্পত্তি শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগদখল করে আসছিলাম। কিন্তু আমার ছোট দেবর চিত্ত রঞ্জন ঢালী ভাসুরের কাছ থেকে ক্রয়করা সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের ষড়যন্ত্র করতে থাকে। এমনকি ভাসুরের রেজিষ্ট্রি করে দেওয়া দলিলটি জাল মর্মে আদালতে মামলা করে। বিজ্ঞ আদালত কাগজপত্র পর্যালোচনা করে দলিলটি সঠিক আছে মর্মে চিত্ত রঞ্জনের মামলা খারিজ করে আমাদের পক্ষে রায় দেন। কিন্তু পর সম্পদ লোভী চিত্ত রঞ্জন আদালতের এ রায়কে অমান্য করে বিভিন্ন কৌশলে উক্ত সম্পত্তি দখলের চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছেন। এর জের ধরে ১৮ এপ্রিল ২০২১ তারিখে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য সংরবরাহ করে পত্র-পত্রিকায় একটি মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করেন। সম্পদের লোভে চিত্ত রঞ্জন অন্ধ হয়ে আপন বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে নানা ধরনের মিথ্যাচার করেছেন। আমরা উক্ত মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
তিনি আরো বলেন, চিত্তরঞ্জন প্রকৃতপক্ষে স্থানীয় একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে এধরনের চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে হয়রানি করছে। অথচ বিজ্ঞ আদালত দলিল জাল নয় এবং আমাদের পক্ষে রায় দিলেও ওই মহলের ইন্ধনে সে এধরনের অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।
তিনি চিত্তরঞ্জনের হয়রানির হাত থেকে রক্ষা পেতে এবং মিথ্যা ভিত্তিহীন অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানিয়ে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।