ঝিকরগাছা(যশোর)অফিস:কানাডায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি) অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মোস্তফা জাহিদ শরীফ লাবলু। গত ১৬ মার্চ আনন্দঘন পরিবেশের এই নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন অ্যাডহক কমিটির সভাপতি এসএম রিয়াজুল হক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৪ ব্যাচের বায়োটেকনোলজি বিভাগের ছাত্র লাবলু যশোরের ঝিকরগাছার সন্তান।

কানাডায় বসবাসরত খুবি গ্রাজুয়েটদের সংগঠনের নির্বাচনে লাবলুর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী ছিলেন ৯১ ব্যাচের তমালুর রহমান শেখ।

প্রসঙ্গত, মোস্তফা জাহিদ শরীফ লাবলু ১৯৭৬ সালে ঝিকরগাছার কৃষ্ণনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ছোটবেলা থেকেই তিনি মেধার স্বাক্ষর রেখে ৫ম ও ৮ম শ্রেণিতে বৃত্তি লাভ করেন। ১৯৯২ সালে উপজেলার প্রথমস্থান অধিকার করে স্টার মার্কসহ এসএসসি পাশ করেন।

১৯৯৪ সালে যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে প্রথম শ্রেণিতে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রথম ব্যাচে ভর্তি হন। সেখান থেকে ১৯৯৯ সালে প্রথম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন। পরবর্তীতে ডেনমার্ক সরকারের বৃত্তি নিয়ে বিশ্ববিখ্যাত টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি অব ডেনমার্ক থেকে ২০০১ সালে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

ছোটবেলা থেকেই বিজ্ঞান গবেষণায় তার দারুণ আগ্রহ ছিলো লাবলুর। পরবর্তীকালে যুক্তরাজ্য সরকারের বৃত্তি নিয়ে স্কটল্যান্ডের হেরিয়ট-ওয়াট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

এরপর কয়েক বছর যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ কোরিয়ার নামকরা বায়ো-মেডিকেল প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। বর্তমানে তিনি কানাডার বিশ্ববিখ্যাত ওষুধ ও ভ্যাকসিন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বায়োভেক্টরার সিনিয়র বিজ্ঞানী হিসেবে কর্মরত।

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মোস্তফা জাহিদ শরীফ লাবলু দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে দ্বিতীয়। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক কন্যা সন্তানের জনক।

আপ্লুত লাবলু বলেন, সংগঠনের সদস্যরা আমার প্রতি যে আস্থা রেখেছেন সেজন্য আমি কৃতজ্ঞ৷ আপনারা যে দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন তা পালনে সচেষ্ট থাকবো। এ সময় অ্যাসোসিয়েশনের সবাইকে একসাথে নিয়ে কাজ করা ও পথ চলার বিষয়ে তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং সংগঠনের সফলতার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।