আমার ধাতে নেই : যাদু

উত্তাল মার্চে কবিতা হোক জাগরণের হাতিয়ার

আমার ধাতে নেই
যাদু
স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরে আমি কি বৃদ্ধ হয়ে গেছি!
অন্ধ, বধির, বোধশক্তি হীন হয়ে গেছি!
আমার রাজপথে কোন মিছিল নেই! কেনো?
আমার চারপাশে কোন প্রতিবাদ নেই! কেনো?
তবে কি খু্ব সুখে আছি?
তবে কি মাত্রাতিরিক্ত শুদ্ধ হয়ে গেছি!
নাকি স্বৈরাচার বা তারও অধিক স্বেচ্ছাচার হয়ে গেছি?
প্রতিটিদিন ধর্ষণ হচ্ছে, খুন হচ্ছে, গুম হচ্ছে অথচ কেমন শান্ত! কেমন শুনশান নিরবতা আমার বুক জুড়ে!
কোন না কোন অপকর্ম ভাইরাল হচ্ছে প্রতিদিন এই আমারই বাংলার বুকে।
আমি নিঃশ্চুপ হয়ে আছি! কেনো,কেনো?

দীর্ঘ সংগ্রাম,দীর্ঘ ত্যাগ তিতিক্ষা আর
অগণন প্রাণের আত্ম বলিদানে
পৃথিবীর মানচিত্রে চির ভাস্বর আমি কি-
যৌবনকে পার করে এসেছি!
চোখ বুজে মুখ গুজে কেবলই বেঁচে আছি!
এ কেমন বাঁচা?
জাতির সূর্য সন্তানদের রক্ত তবে কথা কি আর কবেনা!
অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবে না কোন কণ্ঠস্বর?
কেবলই স্তাবকের হবে জয়?
ক্ষয়ে যাবো, সয়ে যাবো আমি? কেনো,কেনো?

এ কোন পাপ বেঁধেছে বাসা, আমারই বুকে!
এ কোন দোখজ জ্বেলেছে অনল, সবুজ ব-দ্বীপে?
এ কোন অনাচার করছে বিচরণ, প্রতিটি রন্ধ্রে!

আমি ফের ঘুরে দাঁড়াবো, উপড়ে ফেলবো।
আমি ফের উন্মাদ হবো, রণহুঙ্কার দেবো।
ফের ডেকে নেবো উদ্দীপ্ত আপসহীন যৌবন।

আমার চোখে ঘুম নেই
আমার বুকে শান্তি নেই
আমার স্বাধীনতা, স্বস্তি, গৌরব কেড়ে নেবো
আমার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে রক্তই দেবো।

এই মিথ্যা ভড়ং আমার দরকার নেই
ন্যায্য কথা না বলতে পারার-
বিরোধিতা না করতে পারার,
বিনয়?
আমার ধাতে নেই!