কাউন্সিলর প্রার্থী ও আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

টাইম ভিশন: কাউন্সিলর প্রার্থী ও আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম। মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু তাহেরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পৌরসভার কমলাঘাট বন্দর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যায়, আবু তাহের মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী। তিনি টানা ২ বারের কাউন্সিলর। এবার একই ওয়ার্ডের উটপাখি প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আওলাদ হোসেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী।

মিরকাদিম পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ মেয়র শহীদুল ইসলাম শাহীন ও গতবারের পরাজিত প্রার্থী মনসুর আহম্মেদ কালাম গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। আর আবু তাহের শাহীন সমর্থক ও আওলাদ হোসেন কালাম সমর্থক হিসেবে পরিচিত।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি পৌরসভা নির্বাচনে তারা দুজনই একই ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে। পূর্ব বিরোধ ও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সকালে আওলাদ পক্ষের জনি-জিল্লু-মাসুদসহ ১০ জন আবু তাহেরের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন অংশ কুপিয়ে জখম করে চলে যায় তার। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে আসে।
আবু তাহেরের স্ত্রী ও ছেলে শোভন জানান, মনছুর আহামেদ কালামের লোক আওলাদ-ঝিল্লু-জনি গং আমাদের ‘কমলাঘাট সোভন ওয়েল ম্যাটন ফ্যাক্টরীতে’ ঢুকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে প্রার্থী আবু তাহেরের হাত-পা ভেঙ্গে দেয়। মাথা ফাটিয়ে ফেলে। পরবর্তীতে গুরুতর অবস্থায় তাহেরকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এর আগেও গত ১৬ জানুয়ারি পৌরসভার ভূবনপাড়া এলাকায় পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনায় মনছুর আহামেদ কালামের সন্ত্রাসী বাহিনী জুবায়ের হোসেন জনি গং হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আব্দুল মোমেন বলেন- এ ঘটনায় এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থ গ্রহন করা হবে। তবে মিরকাদিম পৌর নির্বাচন নিয়ে এর আগেও বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ঘটেছে। এসব বিয়ষগুলো আমাদের নজরে রয়েছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয় হবে।

পিএনএস