অভিশাপ : সঞ্জয় কুমার কর্মকার

অভিশাপ
সঞ্জয় কুমার কর্মকার

কী অiর চাওয়ার আছে বলো,বিবেক নিয়ত বন্দী, জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে নীরব আত্মগ্লানি।

মসৃন নির্লজ্জতার স্বল্পপ্রাণে ফেনীতে ফেনীতে কতো আগুন, যেন বিস্মৃতি জন্মের অভিশাপ।
নবীন পল্লব, জড়ত্বে এ প্রাণের বীজ, এই সূর্যাস্ত এই আঁধার, মেঘে ঢাকা এই আকাশ আলো আঁধারের স্ততি কতোই রোমন্থন।

কতো অগ্নিমন্ত্র, কতো গুচ্ছ গুচ্ছ প্রাণ, কন্ঠের সন্মুখে কতো বিষাক্ত নিঃশ্বাস মানবিক উৎসমুখে সৌন্দর্যকে বন্দি করে যায়।

স্বপ্নের এই সমুদয়ে উড়ে যায় কতো জীবৎ জিয়ন্ত পাখি, মননে ভাসে প্রাণের কিশলয়, জ্বলে যায় সেই শিখা অনুভুতিহীন সেই হৃদয়ের কাছে।

গলানো পাথরেতে ও কতো স্ফটিক, কতো অশ্রুজল, নির্বপিত কুসুমে ও ফোটে কতো ঘ্রাণ; মর্ম হৃদয় ,দগ্ধে বনাঞ্চল,বিষণ্ন গ্রীষ্মে দুষিত নদীর ধারা,শূন্যে মৌচাক দোলে,
লাঞ্ছিত স্বর্ণচাঁপায় অভিশাপের কতো অন্তর্নিহিত।।