বিয়েবাড়ীতে মাংস কম দেওয়ায় সংঘর্ষ, বরের চাচা নিহত

ডেস্ক : বরিশালে বৌভাতের অনুষ্ঠানে খাবারে মাংস কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে বর ও কনেপক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে একজন নিহত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহদ আজহার মীর (৬৫) বরের চাচা।

স্থানীয়রা জানান, কিছুদিন আগে দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামের মোতাহার মীরের ছেলে সজীব মীরের সঙ্গে বরিশাল নগরীর আবুল কালাম হাওলাদারের মেয়ে রুনা বেগমের বিয়ে হয়। দুদিন আগে রুনাকে বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়ি আনা হয় এবং আজ বৌভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কনে বাড়ি থেকে ৪৮ জন স্বজন সেই অনুষ্ঠানে অংশ নেন। খাবার খাওয়ার একপর্যায়ে মাংস কম দেয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের স্বজনদের প্রথমে তর্ক হয়। এরপর দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

চাঁদপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান সবুজ খান জানান, স্থানীয়রা এ ঘটনায় ১০ জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটকে রেখেছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ বিন আলম বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে আছি। দুই পক্ষের মারামারির এক পর্যায়ে বরের চাচাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। তবে এই ঘটনা কে ঘটিয়েছে তদন্ত করা ছাড়া বলা সম্ভব নয়।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এখনও কোনো মামলা হয়নি।’

পিএনএস