বিজয়ের সার্থকতা : রাজ পথিক

বিজয় দিবসের নিবেদন

বিজয়ের সার্থকতা
রাজ পথিক

আমিও গর্বস্বরে বলতে চাই আমরা স্বাধীন,
বিজয়ের শুভেচ্ছা করতে চাই বিনিময়।
নিয়মিত পুষ্পার্ঘ্য করি অর্পন শহীদ বেদীতে,

তবুও যেন পরাধীনতার বেয়-নেট, সজোরে আঘাত করে হৃদপীণ্ডে।
নির্মমতার মহাসাগর পাড়ি দিয়ে এনেছি স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে,
কিন্তু…আসলে কী পেরেছি বিজয়ী হতে?

জয়গান গাইতে গেলেই যেন হৃদয়ে বেজে ওঠে করুণ সুর!
বিজয়ের গর্বে বুকটা ফুলে উঠতেই, চোখে ভেসে ওঠে নিপিড়িত অসহায় মুখগুলো।

চার বছরের ধর্ষিতা শিশুর অবুঝ নির্মল চাহনি,
আমার স্বাধীন স্বত্ত্বাকে ক্ষত-বিক্ষত করে।
ফুটপাতের বুভুক্ষু নরশাবকের বিবর্ণ মুখগুলো,
আমার বিজয়কে প্রতিনিয়ত দগ্ধ করে।

বিজয় তো আর শুধু পুরুষের জন্যই নয়,
নারী’দেরও আছে তাতে সমান অধিকার।
অথচ প্রতি পদেই হচ্ছে তারা লাঞ্ছিত।

খবরের কাগজে চোখ রাখতেই, অবক্ষয়ের বাস্তব চিত্র দেখে…
বিজয়োল্লাস আমার কাছে নিতান্তই অবাঞ্ছিত,
বিজয় পেয়েছি…কিন্তু বিজয়ী হতে পারিনি!

স্বাধীন দেশে বাস করে যদি বাক স্বাধীনতা না পাই, তবে কোন্ শান্তনা নিয়ে আমি বিজয়ের জয়গান গাই?

তবুও হৃদয়ে আঁকা বাংলাদেশ আমার,
বৈষম্যের বেড়াজাল ছিন্ন করে উদিত হবে নিষ্পাপ একটি সকাল…এটাই আমি চাই।

লেখক: সাহিত্য সম্পাদক টাইম ভিশন 24