হাত : স্বপ্না সাহা

হাত
স্বপ্না সাহা
দূর পাল্লার পথ বেয়ে
একলা দ্বীপে বসে আছে পৃথিবীর কান্ডারী,
যে হাতে একদিন স্বপ্নমাখা রোদ্দুর ঝলসে উঠত,
যে হাত একদিন লাঙল ছুঁয়ে মাটি স্পর্শ করত,
যে হাতের স্পর্শে মানব জাতি আজও
স্বাচ্ছন্দ্যে, বিনা স্বাচ্ছন্দ্যে দিব্যি টিঁকে রয়েছে
সে হাত আজ নীরবে কাঁদছে।
কাঁদছে ধরিত্রীর সবুজ সোনালী ফসলেরা।
সে হাতের জায়গায় থাবা বসিয়েছে
নিগুঢ় কালো হাতের অমোঘ হাতছানি।
আর নিস্পাপ ধরিত্রীর কান্ডারীরা
আজ পথে পথে লড়ছে,
নিজেদের অস্তিত্বের লড়াই,
সকলের অস্তিত্বের লড়াই।
আমরা শুধু বসে বসে অপেক্ষায়….
কোন হাতের জিত হয় তা দেখার।
অদ্ভুত মানবজাতি!!!
একদল লড়ে, একদল মরে–
একদল শুধু উদাসীনভাবে দেখে যায়,
আর একদল সুখের চাদরে মুড়ে
শীতঘুমে দিন কাটায়।।