যশোর হাসপাতাল থেকে রোগীর মোবাইলসহ চোর গ্রেফতারের ঘটনায় মামলা

যশোর প্রতিনিধি: ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে দ্বিতীয় তলা সার্জারী ওয়ার্ড-২ থেকে চুরি যাওয়া দু’টি মোবাইলসহ চোর গ্রেফতারের ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। যশোর সদর উপজেলার সরদার বাগডাঙ্গা গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে আলিম বাদি হয়ে শনিবার কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছে। মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামী যশোর সদর উপজেলার মালঞ্চি গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে মারুফ হোসেন ওরফে রনিকে পুলিশ আদালতে সোপর্দ করেছে।
আব্দুল আলিম মামলায় উল্লেখ করেন, গত ৪ ডিসেম্বর তার ছেলে তোফান বিশ^াস ওরফে বাবু করিমণ দূর্ঘটনায় আহত হয়ে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে সার্জারী-২ দ্বিতীয় তলায় ৩৪ ও ৩৫ নং বিছানার মধ্যে স্থানে ভর্তি করে। গত ৫ ডিসেম্বর গভীর রাত সাড়ে ১২ টা থেকে রাত ৩ টার মধ্যে যে কোন সময় তোফান বিশ^াস বাবুর ১৮ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল ফোন চুরি হয়ে যায়। পরবর্তীতে খোঁজ খবর নিয়ে তিনি জানতে পারেন ওই ওয়ার্ডে ভর্তি যশোরের চৌগাছা উপজেলার গোয়াতুলী গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে সোহেল রানার মোবাইল চুরি হয়ে যায়। মোবাইল চুরির ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর শনিবার ভোরে শহরের বেজপাড়া তালতলাস্থ মেসার্স আবুল হোসেন প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে মারুফ হোসেন রনিকে দু’টি মোবাইল ফোনসহ কোতয়ালি মডেল থানার এসআই অনুপম রায় গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে হাসপাতালের ওয়ার্ড থেকে চুরির বিষয়টি ফাঁস করে দেয়। পরবর্তীতে ওয়ার্ড থেকে উক্ত ব্যক্তিকে খবর দিলে থানায় এসে মোবাইল সনাক্ত করে।