বিসিক পরিচালক করোনায় আক্রান্ত

টাইম ভিশন 24

 বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) পরিচালক ( প্রকৌশল ও প্রকল্প বাস্তবায়ন) মুহাম্মদ আতাউর রহমান ছিদ্দিকী করোনাভাইরাসে ( কভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন।

গত ১৪ নভেম্বর বিসিক চামড়া শিল্পনগরী প্রকল্পের চলমান কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে বাসায় ফেরার পর করোনা ভাইরাস উপসর্গ দেখা দেয়। পরবর্তীতে পরীক্ষা করালে পরিচালক মহোদয় করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন বলে শনাক্ত হোন। তার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল রয়েছে। বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ মোতাবেক চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করছেন তিনি। তার আশু সংক্রমণ মুক্তির জন্য তিনি সহকর্মী, শুভাকাঙ্খী ও দেশবাসীর নিকট দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

মুহাম্মদ আতাউর রহমান সিদ্দিকী ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ তারিখে বিসিক পরিচালক (প্রকল্প) হিসেবে যোগদান করেন। তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের একজন উপ-সচিব । মুহাম্মদ আতাউর রহমান সিদ্দিকী টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি উপজেলায় ১৯৭৬ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ২০০৩ সালের বিসিএস ক্যাডারের ২২ তম ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২০০০ সালে পুরকৌশল (সন্মান) এবং পরবর্তীতে পুরকৌশল (এনভায়রনমেন্টাল) স্নাতোকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।

বিসিকে যোগদানের পূর্বে তিনি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে উপ-সচিবসহ মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন ।

বিসিক চেয়ারম্যানসহ প্রধান কার্যালয় ও বিসিকের মাঠ পর্যায়ের ৪৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী দাপ্তরিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। দাপ্তরিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এ যাবৎ ৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। সুস্থ হয়েছেন ৩৯ এবং ৬ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার সাথে সাথেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘোষিত ৩১ দফা নির্দেশনার আলোকে স্বাস্থ্য-বিধি অনুসরণপূর্বক বিসিকের ৭৬ টি শিল্পনগরীতে অবস্থিত শিল্প ইউনিটসমূহে পণ্য উৎপাদন, মাঠে লবণ চাষ ও লবণ মিলগুলোতে আয়োডিনযুক্ত লবণ উৎপাদন এবং ট্যানারিসমূহে চামড়া প্রক্রিয়াজাত অব্যাহত রাখতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করে বিসিক।

করোনার প্রভাবে যেখানে দেশের বেশিরভাগ শিল্প কারখানাই বন্ধ ছিল সেখানে বিসিকের সার্বিক সহায়তায় বিসিক শিল্পনগরীতে অবস্থিত শিল্প ইউনিটসমূহে নিয়মিতভাবে করোনা প্রতিরোধকমূলক পণ্য ( মেডিকেল অক্সিজেন, পিপিই, মাস্ক, স্যানিটাইজার, জীবাণুনাশক), চাল, ডাল, তেল, আটা, ময়দা, সুজিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য, এবং জীবন রক্ষাকারী ঔষধ , কৃষি যন্ত্রাংশ, কিটনাশক ও স্যার উৎপাদন ও সরবরাহ অব্যাহত রাখে।

বিসিক কর্তৃপক্ষের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকালীন অবস্থায়ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে উৎপাদন ও সরবরাহ অব্যাহত রাখতে করোনা মোকাবেলার যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েন বিসিক কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ।

পিএনএস