যশোরে পুলিশের স্ত্রী শ্যালক ও ম্যারেজ রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

যশোর প্রতিনিধি: যশোরে পুলিশ সদস্যের স্ত্রী, শ্যালক ও মারেজ রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে জাল জালিয়াতির অভিযোগে সোমবার আদালতে মামলা হয়েছে। যশোর শহরতলীর ঝুমঝুমপুর এলাকার বাসিন্দা কাজী শাহাজান এ মামলা করেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন অভিযোগ i;,আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।  ওই পুলিশ সদস্যের স্ত্রীর নাম মোছা. যুথী খাতুন। মামলার অপর দুই আসামি হচ্ছেন-যুথী খাতুনের ভাই সদর উপজেলার বালিয়াঘাট গ্রামের বাসিন্দা মোতালেব হোসেনের ছেলে খালিদ মাহমুদ সুজন ও হৈবতপুর ইউনিয়নের ম্যারেজ রেজিস্ট্রার মাওলানা আবদুল রহিম।  বাদী কাজী শাহাজানের অভিযোগ, তার ছেলে রিফাত হোসেন বাংলাদেশ পুলিশে ঢাকায় কর্মরত। এক বছর আগে রিফাত হোসেনের সাথে মোছা. যুথী খাতুনের বিয়ে হয়। ম্যারেজ রেজিস্ট্রার ছিলেন মাওলানা আবদুল রহিম। কাবিননামায় বিয়ের তারিখ ২০১৯ সালের ২৯ নভেম্বর ও দেনমোহর ৫০ হাজার টাকা উল্লেখ ছিলো। কিন্তু উল্লিখিত আসামিরা পরস্পর যোগসাজসে জালজালিয়াতির মাধ্যমে একটি ভুয়া কাবিনানামা তৈরি করেন। ভুয়া কাবিননামায় ২৯ নভেম্বরের পরিবর্তে বিয়ের তারিখ ১৯ নভেম্বর এবং দেনমোহর ৫০ হাজার টাকার পরিবর্তে ২ লাখ টাকা লেখা হয়েছে। তাছাড়া ভুয়া কাবিননামায় বিয়ের তারিখ ১৯ নভেম্বর উল্লেখ করা হলেও ওই তারিখে রিফাত হোসেন ঢাকায় তার কর্মস্থলে উপস্থিত ছিলেন। গত ১৭ অক্টোবর বিকেলে আসামিরা বাদীর (কাজী শাহাজান) বাড়িতে এসে ভুয়া কাবিননামা দেখিয়ে দুই লাখ টাকা দেনমোহর দাবি করেন। অন্যথায় মামলা করার হুমকি দেন। বাধ্য হয়ে বাদী আদালতে মামলা করেন।