তালের রস শুধু সুস্বাধু পিঠা তৈরিতেই নয়, এর অনেক উপকারিতাও রয়েছে। এছাড়াও তালের রসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের উপস্থিতিও রয়েছে।

এ ছাড়া তালের রস থেকে তাল মিছরি, গুড়, চিনি ও ভিনিগার ইত্যাদি তৈরি করা হয়। সাধারণত ভাদ্র ও আশ্বিন মাসই তাল খাওয়ার উপযুক্ত সময়। একটি তাল গাছ ১০/১২ বছর বয়স থেকেই ফল দিতে শুরু করে।

এবার আসুন, জেনে নিই, তালের কয়েকটি উপকারিতা :

১. তালের রস খেলে পেটের কৃমির সমস্যা দূর হয়ে যায়।

২. নিয়মিত তালের রস সেবনে সর্দি, মাথাব্যথা, হুপিং কাশি এবং অনিদ্রা দূর হয়ে যায়।

৩. গনোরিয়া ও আমাশার মতো রোগ থেকেও মুক্তি দেয় এই তালের রস।

৪. এছাড়াও বজ্রপাত ঠেকাতেই বিশেষ ভুমিকা রয়েছে তাল গাছের। তাই সাম্প্রতিকালে দেশে বজ্রপাতে মৃত্যুর ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় বেশি বেশি তাল গাছ লাগানোর কথা বলছেন পরিবেশবিদরা।