ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত শতাক্ষী দাস বাঁচতে চায়, সাহায্যের আবেদন বিত্তবানদের কাছে

টাইম ভিশন ২৪ : অসহায় শতাক্ষী দাস গুপ্তার চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য দেশের বিত্তবান ও সহৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতা কামনা করেছেন তার বাবা।

দুরারোগ্য ব্যাধি ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত শতাক্ষী দাস গুপ্তা এখন জীবনযুদ্ধে বেঁচে থাকার লড়াই করে যাচ্ছেন। তবে আর্থিক টানাপোড়নের মধ্যেও ঋণ করে চিকিৎসা করে সর্বস্ব হারিয়েছেন । তবে জটিলতা কাটেনি এখনো। দারিদ্রতার কষাঘাতে আটকে গেছে তার চিকিৎসা। তিনিও চান সাধারণ মেয়েদের মতো নিজে বেঁচে থাকতে। শতাক্ষী দাস গুপ্তা যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়া এলাকার তুহিন দাস গুপ্তের মেয়ে । এলাকায় ক্ষুদ্র ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন বাবা তুহিন দাস গুপ্ত। একপর্যায়ে ব্যবসায় সাফল্য অর্জন করতে না পেরে ঋণে জর্জরিত হয়ে পড়েন। এরই মাঝে তুহিন দাস গুপ্তের জীবনে সবচেয়ে বড় দুর্যোগটি নেমে আসে। তার কন্যা দুরারোগ্যে ব্যাধি ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়।

প্রথমে ধারদেনা করে স্থানীয়ভাবে মেয়ের চিকিৎসা করান তিনি। কিন্তু অবস্থার কোনো উন্নতি না হওয়ায় গত ফেব্রয়ারী মাসে তাকে ভারতের এইস সি জি ইকো ক্যান্সার সেন্টারে নিয়ে যান। সেখানের চিকিৎসক ডা: জয়দেব চক্রবর্তী তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন । চিকিৎসকের পরামর্শে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে জানতে পারেন তিনি ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। শতাক্ষী দাস গুপ্তার এ রোগের চিকিৎসা ব্যয় বহন করা বাবা তুহিন দাস গুপ্তের পক্ষে দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে।

স্থানীয়রা জানান, অসুস্থ মেয়ের চিকিৎসা খরচ এ দরিদ্র পরিবারের পক্ষে জোগাড় করা অসম্ভব হয়ে গেছে। মেয়েটির জীবনপ্রদীপ রক্ষার জন্য তার বাবাকে সাহায্য করা সবচাইতে বড় মানবিক কাজ হবে। এদিকে কন্যা শতাক্ষী দাস গুপ্তাকে বাঁচাতে দেশবাসীর কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন বাবা তুহিন দাস গুপ্ত। যে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বরে সাহায্য পাঠাবেন: শতাক্ষী দাস গুপ্তা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নং- ০১৪২০৫০০২৫০০৫, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, যশোর, সদর শাখা, যশোর। এছাড়া ০১৮৭৩২৬৭৫৭৫ (বিকাশ) নম্বরে যোগাযোগ করে নিশ্চিত হয়ে ক্যান্সার আক্রান্ত শতাক্ষী দাস গুপ্তার চিকিৎসায় সহযোগিতা করতে পারেন।