GPA-5 বনাম একজন সর্বোপরি ভালো মানুষ : কাজী লীনা আরাফাত

GPA-5 বনাম একজন সর্বোপরি ভালো মানুষ
কাজী লীনা আরাফাত

একটি শিশু তার জন্মের মধ্যে দিয়ে কিছু মৌলিক চাহিদা প্রাপ্তির অধিকার লাভ করে এবং বেড়ে ওঠার মধ্যে দিয়ে সে তার ব্যক্তি স্বাধীনতা লাভের অধিকার রাখে।।
কিন্তু সমাজ একটি শিশুর উপর বোঝা চাপিয়ে দেয় নানা ভাবে যেমনঃ জন্ম নেওয়ার সাথে সাথেই নিকট আত্মীয়-স্বজন তার মাথায় হাত দিয়ে দোয়া করার মাধ্যমে শপথ গ্রহণ করায় “বড় হয়ে তাকে ডাক্তার বা ইন্জিনিয়ার হতেই হবে। ” কখন তারা বলেন না – সর্বোপরি তাকে একজন ভালো মানুষ হতে হবে।।
এর পর যখন সে স্কুলে ভর্তি হলো তখন থেকেই জীবনযুদ্ধ নামক খাতায় নাম লিখিয়ে ফেলল, তোতা পাখির মতো পাঠ্যবই মুখস্ত বলতে হবে এবং পরীক্ষার খাতায় হুবহু উদগীরণের মাধ্যমে মেধা তালিকায় ১-৩ এর মধ্যে থেকে মা- বাবার নাম উজ্জ্বল করতে হবে,এভাবে চললো শিশু থেকে চতুর্থ শ্রণী পযর্ন্ত, এরপর আরো কঠিন যুদ্ধ সমাপনী, জে এস সি ইত্যাদি ইত্যাদি।।
G P A -5 পাওয়াই লাগবে নইলে কর্মস্থল, আবাসস্থল তথাপরি নিকট আত্মীয়-স্বজন কারো কাছেই মুখ থাকবে না, ” সত্যি বড় বিচিত্র এই GPA-5 খেলা ” আমাদের এই দেশ সহ সারা বিশ্বে এমন অনেক নামীদামী ব্যক্তি আছেন যাদের ঝুলিতে কিন্তু GPA-5 নাই কিন্তু
তারা নিজেদের তৈরী অবস্হানে শ্রেষ্ঠত্বের দাবিদার যেমনঃ বাউল শিল্পী সংসদ সদস্য মমতাজ, তার শিক্ষা গত যোগ্যতা সবারই জানা,তবে তার মতো যোগ্য এদেশে কয়জন আছেন ?? বিশ্ববিখ্যাত ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান তিনি তো বিশ্ববিখ্যাতদের তালিকায় আছেন, খুঁজে দেখুন তো তার ঝুড়িতে কয়টি GPA-5 আছে ???
প্রতিটি মানুষই কিছু আলাদা বৈশিষ্ট্য নিয়ে জন্ম গ্রহণ করে তার সেই গণাবলী খুঁজে বের করার দায়িত্ব মা,বাবা, শিক্ষক সহ আামাদের এই সমাজের, আমাদের সবারই উচিত নিজ সন্তানকে বোঝা, তার মত প্রকাশের স্বাধীনতা দেওয়া।।
সে লেখাপড়ার পাশাপাশি কি করতে পছন্দ করে, খেলা-ধূলা নাকি ছবিআঁকা………… তার পছন্দের মূল্য দিতে শিখুন, দেখবেন পুথিঁগত বিদ্যা হস্তগতের মধ্যে দিয়ে সে যা হতে পারছে না, সৃজনশীলতার মধ্যে দিয়ে সে নিজেকে অনায়াসে আরো সুন্দর ভাবে তুলে ধরতে পারছে।।
আপনার সন্তান শুধু আপনার একার নয়, এরা সমাজ তথা রাষ্ট্রের সম্পদ এদের কে GPA -5 নামক যন্ত্র মানব না বানিয়ে, একজন সফল সৃষ্টিশীল, প্রগতিশীল মানুষ হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হতে সহায়তা করুন।।
কাজী লীনা আরাফাত
সদস্য, মহিলা পরিষদ
যশোর জেলা শাখা, যশোর।।