জয়পুরহাট রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী বরখাস্ত

টাইম ভিশন ডেস্ক : চাহিদা অনুযায়ী ঘুষ না দেয়ায় এক সহকর্মীকে হয়রানি এবং ঘুষ নিয়ে আরেকজনকে চাকরি দেয়ার অভিযোগে জয়পুরহাটের জেলা রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী মো. মোয়াজ্জেম হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত ১০ সেপ্টেম্বর আইন মন্ত্রণালয়ের অধীন নিবন্ধন অধিদফতর থেকে তাকে বরখাস্ত করে আদেশ জারি করা হয়েছে।

নিবন্ধন মহাপরিদর্শক শহীদুল আলম ঝিনুক স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়েছে, গত ১০ সেপ্টেম্বর হবিগঞ্জের রেজিস্টার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী মো. আব্দুল মন্নান নিবন্ধন মহাপরিদর্শকের কাছে নাটোরের রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী আব্দুল মোতালেবের উপস্থিতিতে লিখিতভাবে অভিযোগ দেন। সেখানে বলা হয় মো. মোয়াজ্জেম হোসেন (বর্তমানে জয়পুরহাটের জেলা রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী) নিবন্ধন অধিদফতরের অফিস সহকারী পদে কর্মরত থাকাকালে ২০১৩ সালে অবৈধ অর্থ দাবি করলে চাহিদা মোতাবেক না দেয়ায় ষড়যন্ত্র করে আব্দুল মন্নানকে পদোন্নতি বঞ্চিত করেছেন।

আব্দুল মন্নান আরও অভিযোগ করেন, ২০১৬ সালের পদোন্নতিকালে পুনরায় তার (আব্দুল মন্নান) কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা অবৈধভাবে দাবি করেন। তিনি ১০ লাখ টাকা দিতে না পারায় তাকে নীলফামারী জেলা রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের প্রধান সহকারী হিসেবে পদায়নে ষড়যন্ত্র করেছিলেন মোয়াজ্জেম।

একই সঙ্গে মহাপরিদর্শক মৌখিকভাবে অবগত হয়েছেন যে, মোয়াজ্জেম হোসেন অধিদফতরে কর্মরত থাকাকালীন অধিদফতরের অফিস সহকারী মো. মেহেদী হাসানের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ অর্থ গ্রহণ করে তাকে অধিদফতরে চাকরির ব্যবস্থা/নিয়োগের সহযোগিতা করেছেন।

আনীত অভিযোগ অত্যন্ত গুরুতর এবং ‘সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮’ অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন কার্যকলাপের জন্য কেন বিধিমালা অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, আগামী ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে আদেশে।

আদেশে আরও বলা হয়, ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের গুরুত্ব ও ভারত্ব বিবেচনা করে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

পিএনএস