ছলোনাময়ী নারী : কাঞ্চন চক্রবর্তী

ছলোনাময়ী নারী পর্ব (০৬) : কাঞ্চন চক্রবর্তী : আপা উপরে আছেন। রূবি পূর্বেই সব কিছু দারোয়ান কে বুঝিয়ে রেখেছিল, নিজের বাড়ি চারচালা টিনের ঘর জীবনে কোনদিন এমন আলিশান বাড়িতে পা রাখেনি রমিজ, তাই বুকের ভিতর কেমন জানি ভয়-ভয় কাজ করছে,সিড়ি বেয়ে উপরে উঠতেই অপরূপা নারীর কণ্ঠে ভেষে এলো কে, কে ওখানে? কোন উত্তর না পেয়ে রূবি নিজেই উঠে এলো, কে আপনি? ভয়-ভয় কণ্ঠে বললো জি আমি মানে আমার নাম রমিজ, কিন্তু আপনি? ভিতরে এসো আমি রূবি তোমার অপেক্ষায় আছি,রমিজের দেহখানা নিথর হয়ে গেল চোখ দৃষ্টিহীন হয়ে গেছে পলক বন্ধ হয়ে গেছে, কারন এই সেই রূবি এতোরূপ যেমন সুঠাম দেহ আনুমানিক ৫ফিট ৮/৯ইন্চি লম্বা তেমনি দুধে আলতা গায়ের রং, বুকের বেড় আনুমানিক ৩৬ ইঞ্চি মুখমন্ডল মেকাপে পরিপূর্ণ পোশাক অর্ধনগ্ন, বয়স আর কতই বা হবে ২০/২২বছর ঠোট দু’টো গোলাপের পাপড়ির মত ফুটে আছে,বক্ষ যেন হিমালয়ের চুড়ার মত উঁকি দিচ্ছে, রমিজ কি বলবে তার সব ভাষা সে যেন হারিয়ে ফেলেছে, বিদ্যুতের খাম্বার মত দাড়িয়ে আছে, কোন প্রকার নড়াচড়া নেই,তার নিরবতা দেখে রূবি কাছে এসে হাতখানা ধরে টান দিয়ে সোফায় বসিয়ে দিয়ে পাশে বসালো, কি ব্যাপার তুমি এতো ঘামছো কেন?রমিজ নিজেকে সামলে নিয়ে বললো না মানে তুমি এতো সুন্দর তা আগে বুঝতে পারিনি তাই,ও এই কথা তুমিও তো কম কিসে? সিনেমার নায়কদের কাছে তোমার রূপ হার মানবে, তুমি অনেক দূর থেকে এসেছো নাও খাও,কি এগুলি?সামান্য মাংস ও বিলেতি মদ, তুমি মদ খাও?দেখ আমরা হাই

চলবে- – –