শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের সুপার সাময়িক বরখাস্ত

টাইম ডেস্ক : যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের বন্দি তিন কিশোর নিহত হওয়ার ঘটনায় কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক আব্দুল্লাহ আল মাসুদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একইসাথে গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শুক্রবার বিকেলে তিন সদস্যবিশিষ্ট এই কমিটি ঘোষণা করেন। যশোরের জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে তিন বন্দি নিহতের ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। নিহত রাব্বির বাবা রোকা মিয়া কেন্দ্রের অজ্ঞাত কর্মকর্তা-কর্মচারিদের নামে মামলাটি করেছেন।

তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবুল লাইছকে। এছাড়া সদস্যসচিব সমাজসেবা অধিদপ্তর যশোরের উপ-পরিচালক অসিত কুমার সাহা এবং সদস্য করা হয়েছে জেলা পুলিশ সুপারের একজন প্রতিনিধি- যিনি এএসপি পদমর্যাদার নিচে নন। কমিটিকে আগামী ৫ কার্যদিবসের মধ্যে তাদের তদন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে বিকেলে সমাজসেবা অধিদপ্তর দুই সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করে।

ওই কমিটির প্রধান করা হয় সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রতিষ্ঠান) সৈয়দ মোহাম্মাদ নুরুল বসিরকে। তার সাথে তদন্তকাজে সহায়তা করবেন উপপরিচালক (প্রতিষ্ঠান-২) এসএম মাহমুদুল্লাহ। আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে এ কমিটিকে মহাপরিচালকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে মারপিটের ঘটনায় ৩ বন্দি কিশোর নিহত হয়। এ সময় আহত হয়েছে ১৪ জন। আহতদের পুলিশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ওই কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়কসহ ১০ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

কোতয়ালি থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানিয়েছেন, যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার তিন বন্দি কিশোর নিহতের ঘটনায় মামলা হয়েছে। নিহত রাব্বির বাবা রোকা মিয়া কেন্দ্রের অজ্ঞাত কর্মকর্তা কর্মচারিদের নামে মামলাটি করেছেন।পিএনএস