যশোরে আন্তঃজেলা অটোরিক্সা চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার, চোরাই ১৮ টি অটোরিক্সা উদ্ধার

 

টাইম ডেস্ক : রফিজ গাজী (৪০), পিতা- মৃত নওশেদ গাজী, সাং-চাকই, থানা-নড়াইল সদর, জেলা-নড়াইল, সে একজন ইজিবাইক চালক। তার সাথে ইং ২৭/০৭/২০২০ তারিখ সকাল ১০.০০ ঘটিকার সময় শংকরপাশা চৌরাস্তা ঘাট হতে অভয়নগর থানাধীন দেয়াপাড়া ব্রীজ যাওয়ার পথে অজ্ঞাত ০২জন আরোহীর সাথে পরিচয় হয়।

তারা মাছের ব্যবসা করে মর্মে পরিচয় দিয়া মোবাইল নম্বর আদান-প্রদান করে। পরের দিন ইং ২৮/০৭/২০২০ ইং তারিখ দুপুর ১০.০০ ঘটিকার সময় ইজি বাইক চালক রফিজ গাজীকে অপরিচিত আরোহীদের মধ্যে একজন মোবাইলে ফোন করে দেয়াপাড়া ব্রীজে যেতে বললে সে তার গ্রীন রংয়ের ইজি বাইক নিয়া বেলা ১২.০০ ঘটিকার সময় দেয়াপাড়া ব্রীজের উপর যায়।

তখন অজ্ঞাতনামা আরোহীদের মধ্যে ১ জন তার গাড়ীতে উঠে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বসুন্দিয়া রেলষ্টেশন এলাকায় জংগলবাধাল নামক স্থানে একটি দু’তলা বিল্ডিং এর নীচতলায় তাদের ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়।

সেখানে তারা তাকে ভাত খাইতে দিলে, সে মাংসভাত ও ডাল ভাত খায়। এর পর সে অচেতন হয়ে পড়ে। উদ্ধার পরবর্তী ইং ০২/০৮/২০২০ তারিখে তার যশোর জেনারেল হাসপাতালে জ্ঞান ফেরে এবং সে জানতে পারে তাকে ২৯/০৭/২০২০ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ১৯.৩০ ঘটিকার সময় বসুন্দিয়া একটি বাসা থেকে পুলিশের সহায়তায় তার আত্মীয়স্বজন ঘরের তালা ভেঙ্গে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

অজ্ঞাতনামা দুস্কৃতকারীরা তাকে অপহরণ করে নিয়ে খাদ্যের সাথে চেতনা নাশক ঔষধ খাওয়ায়ে অজ্ঞান করে তার গ্রীন রংয়ের ইজিবাইক ও সাথে থাকা মোবাইল ফোন, নগদ ২,৫০০/- টাকা চুরি করে নিয়ে যায় ও তাদের সহযোগীদের মাধ্যমে ভিকটিমের পরিবারের নিকট মুক্তিপন দাবী করে।

ভিকটিম পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে গত ১১/০৮/২০২০ ইং তারিখে অভয়নগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে অভয়নগর থানার মামলা নং-০৬ তাং-১১/০৮/২০২০ ইং ধারা-৩৬৪/৩৮৫/৩২৮/৩৭৯ পেনাল কোড রুজু হয়।

মামলাটি চাঞ্চল্যকর ও স্পর্শকাতর হওয়ায় জেলা পুলিশ সুপার জনাব মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, পিপিএম যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখার উপর তদন্তভার ন্যাস্ত করেন।

গ্রেফতার ও উদ্ধার অভিযানঃ

জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ সোমেন দাশ এর নেতৃত্বে গত ইং ১২/০৮/২০২০ তারিখ দুপুর ১৩.০০ ঘটিকার সময় গোপালগঞ্জ সদর থানাধীন গোলাবাড়ীয়া এলাকায় যশোর ডিবি’র একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে জনৈক ওয়াজেদ আলী মুন্সির একটি গোডাউন ঘর হতে ইজিবাইক চোর চক্রের মূল হোতা ০২ সদস্য ১। আলম ফরাজি (৪৪) ২। মোঃ রবিউল ইসলাম (৪৮) দেরকে গ্রেফতার করে এবং তাদের হেফাজত হতে অন্য একজন অপহৃত ভিকটিম মোঃ ইমরান শেখ (২০), পিতা- আঃ সামাদ শেখ, সাং- কাজলিয়া, থানা- গোপালগঞ্জ সদর, জেলা-গোপালগঞ্জ নামের ইজিবাইক চালককে তার ব্যবহৃত ইজিবাইকসহ উদ্ধার করা হয়।

ধৃত আসামীদের হেফাজত হতে অভয়নগর থানার মামলার ভিকটিম রফিজ গাজীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনসহ মোট ০৮টি মোবাইল সেট, ৭০ পিচ চেতনা নাশক ঔষধ, খাদ্য সামগ্রী, খাদ্য খাওয়ার প্লেট/বাটি জব্দ করা হয়।

ধৃত আসামীদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক তাদেরকে নিয়ে একই দিন ২০.০০ ঘটিকার সময় কুষ্টিয়া সদর থানাধীন চৌড়হাস ফুলতলা এলাকায় মিজানুর রহমান @ মেজর (৪০) এর অটো গ্যারেজে অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিম রফিজ গাজীর গ্রীন রংয়ের ইজিবাইকসহ তাদের কথিতমতে বিভিন্ন ঘটনার ০৩ টি চোরাই ইজি বাইক জব্দ করা হয়।

এছাড়াও উক্ত অটো গ্যারেজ হইতে চোরাই সন্ধিগ্ধ ১৫টি ইজি বাইক যশোর জেলা ডিবি টিমের সহায়তায় কুষ্টিয়া সদর থানা পুলিশ জব্দ করে থানা হেফাজতে রাখেন (যার আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন)।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীগন অভয়নগর থানার মামলার ঘটনা ছাড়াও ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর, সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা, মাগুরা জেলার শালিখা থানা এলাকায় একই পদ্ধতিতে ইজি বাইক চুরি করার দায় স্বীকার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের নাম ঠিকানাঃ

১। আলম ফরাজি @ মহারাজ (৪৪), পিতা- মৃত আঃ ওহাব ফরাজি, মাতা- মৃত আমেনা খাতুন, স্থায়ী সাং- নয়াপাড়া, বর্তমান সাং-বাইজুরা, থানা-তালতলী, জেলা-বরগুনা ( ভাসমান থাকে )
২। মোঃ রবিউল ইসলাম (৪৮), পিতা- মৃত হাবিবুর রহমান, মাতা- সাজেদা বেগম, স্থায়ী সাং- সীতারামপুর মধ্যপাড়া, থানা- কোতয়ালী, জেলা-যশোর ( ভাসমান)
৩। মোঃ মিজানুর রহমান @ মেজর (৩৮), পিতা- মৃত কুতুব উদ্দিন, মাতা- মাজেদা বেগম, স্থায়ী সাং- চৌড়হাস ফুলতলা, মতি মিয়া সড়ক, থানা- কুষ্টিয়া সদর, জেলা-কুষ্টিয়া।

অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারঃ
১। রফিজ গাজী (৪০), পিতা- মৃত নওশেদ গাজী, সাং-চাকই, থানা-নড়াইল সদর, জেলা-নড়াইল।
২। মোঃ ইমরান শেখ (২০), পিতা- আঃ সামাদ শেখ, সাং- কাজলিয়া, থানা- গোপালগঞ্জ সদর, জেলা-গোপালগঞ্জ।

উদ্ধারকৃত আলামতঃ
১। ইজিবাইক ১৮টি (১৫টি ইজি বাইক কুষ্টিয়া সদর থানা পুলিশের হেফাজতে বিধি মোতাবেক জমা আছে)।
২। চেতনা নাশক ঔষধ ৭০ পিচ।
৩। ০৯টি মোবাইল ফোন।
৪। থালা/বাসন ( খাদ্য খাওয়ার সরঞ্জাম)।