প্রেস ক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন করোনায় আক্রান্ত

প্রেস ক্লাব যশোরের সভাপতি ও দৈনিক যশোরের সম্পাদক জাহিদ হাসান টুকুন । টাইম ভিশন ২৪

স্টাফ রিপোর্টার: প্রেসকাব যশোরের সভাপতি ও দৈনিক যশোরের প্রকাশক সম্পাদক জাহিদ হাসান টুকুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
উপসর্গ দেখা দেওয়ায় গত ৫ জুন জাহিদ হাসান টুকুন পরীক্ষার জন্য তার শরীরের নমুনা দেন। খুলনা মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পরীা শেষে গত রাতে তার রিপোর্ট পজেটিভ আসে। বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগের প থেকে তাকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন ‘যশোর জেলা করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কমিটি’র এই সদস্য। তিনি নিজেও জাহিদ হাসান টুকুনের সঙ্গে একাধিকবার কথা বলেছেন বলে জানান সিভিল সার্জন। এদিকে, জাহিদ হাসান টুকুন জানান, তার শারীরিক অবস্থা বেশ ভালো আছে। বেশ কয়েকদিন আগে থেকে তিনি সিনিয়র ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ী চলছেন। তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। জাহিদ হাসান টুকুন যশোর প্রেসকাবের টানা তিনবারের সভাপতি। এর আগে তিনি একই প্রতিষ্ঠানের সম্পাদক ও সহসভাপতি হিসেবে বেশ কয়েক টার্মে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়াও নানা সংগঠন ও সংস্থায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন জাহিদ হাসান টুকুন। তিনি রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি যশোরের দীর্ঘদিনের সাধারণ সম্পাদক। রোটারি কাবের শীর্ষ সংগঠক, জেলা জ্বালানিতেল পরিবেশক সমিতি, গ্যাস ব্যবসায়ী সমিতিরও সভাপতি। নন্দন যশোর নামে একটি সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সেভিয়ার নামে একটি এনজিওর নির্বাহী পরিচালক। যশোর চেম্বার অব কমার্সে বেশ কয়েক দফায় সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। যশোর জেলা ট্রাক ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিষ্ঠাতাদেরও অন্যতম তিনি। এর বাইরে সামাজিক নানা কর্মকান্ডে যুক্ত জাহিদ হাসান টুকুন করোনা পরিস্থিতিতে ফ্রন্টলাইন ফাইটার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এই সময়কালে নিরন্ন বহু মানুষ তার কাছ থেকে সহযোগিতা পেয়েছেন। জেলা করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কমিটির সদস্য হিসেবে জেলা পর্যায়ে পলিসি নির্ধারণে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় ছিলেন। বিশেষ করে যশোর বড়বাজারে জনসমাগম নিয়ন্ত্রণে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনাসাপেে কার্যকর ভূমিকা রাখেন তিনি। সিভিল সার্জন ডা. শাহীন জানান, আপাতত শহরের রেল রোডের বাড়িতে আইসোলেশনে থেকেই চিকিৎসা নেবেন জাহিদ হাসান টুকুন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা নিশ্চিত করবেন। শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি না হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে না। বাড়ি লকডাউনের বিষয়টি দেখবেন স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা। জাহিদ হাসান টুকুন জানান, এই মুহূর্তে গলা ব্যথা ছাড়া তার আর কোনো সমস্যা নেই। কুসুমগরম পানি গার্গল করলে সেটিও নিয়ন্ত্রণে আসছে। ফলে আপাতত বাড়িতে থেকেই ডাক্তারের পরামর্শে চলার কথা ভাবছেন তিনি। দরকার মনে করলে বাংলাদেশের সর্বাধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার সমতা রয়েছে সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম অ্যাডভোকেট এএম বদরুল আলার এই সন্তানের। তার ঘনিষ্ঠ যশোরের এক ব্যবসায়ী নেতা সম্প্রতি রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে করোনামুক্ত হয়েছেন। দরকার হলে রাজধানীর ওই হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নিতে জাহিদ হাসান টুকুন তার সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছেন বলে জানিয়েছেন ওই ব্যবসায়ী নেতা। এদিকে, জাহিদ হাসান টুকুনের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন কাবের সহ-সভাপতি নূর ইসলাম ও আনোয়ারুল কবীর নান্টু, সম্পাদক আহসান কবীরসহ কাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সব কর্মকর্তা। প্রেসকাব যশোরের কার্যনির্বাহী কমিটির সর্বশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয় গত ২৯ জুন। জাহিদ হাসান টুকুনের সভাপতিত্বে ওই সভায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হয়। কাবের সম্পাদক আহসান কবীর জানিয়েছেন, কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে কার্যকর করা হবে। এছাড়া অব্যাহত থাকা করোনা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা জোরদার করে কাবের স্বাভাবিক কার্যক্রম চালানো হবে।