যেসব ওষুধ বন্ধ হল করোনা চিকিৎসায়

হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের তেমন কোন উন্নতি না দেখে করোনার ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হাইড্রোক্সোক্লোরোকুইন, লোপিনাভির ও রিটোনাভিরের ক্লিনিকাল ট্রায়াল বন্ধ ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। হাসপাতাল থেকে পাওয়া প্রমাণের উপর ভিত্তি করে এমন সিদ্ধান্ত নিযেছে প্রতিষ্ঠানটি।

এই অন্তর্বর্তীকালীন পরীক্ষার ফলাফলগুলি দেখায় যে হাইড্রোক্সাক্লোরোকুইন, লোপিনাভির ও রিটোনাভির মানের তুলনায় হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীদের মৃত্যুর পরিমাণ কমাতে সামান্যতম ভূমিকা রাখছে।

তবে সংস্থাটি বলছে এ সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের ক্ষেত্রে। তবে অন্যান্য রোগের ক্ষেত্রে এসব ওষুধের ব্যবহার আগের মতই থাকবে।

উল্লেখ্য, হাইড্রোক্সোক্লোরোকুইন মূলত আর্থাইটিসের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয় আর লোপিনাভির , রিটোনাভির এইচআইভির চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে।