মোংলায় রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নকল বিড়ি বিক্রির অভিযোগে ৩জন আটক, জরিমানা আদায়

ফিরোজ শাহ্,মোংলা: মোংলায় রাজস্ব ফাকী দিয়ে নকল বিড়ি বিক্রির সময় প্রায় ৫০ হাজার বিড়িসহ এক জনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর তিনটার দিকে পৌর শহর থেকে এ প্রতারককে আটক করা হয়। দুপুরেই বিড়িসহ আটক ওই ব্যাক্তিকে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) নয়ন কুমার রাজ বংশি ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে জরিমানা আদায় করে এবং নকল বিড়িগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংশ করা হয়। এছাড়া ১ জুলাই নকল বিড়িসহ আরো দুইজনকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করে উপজেলা প্রশাসন।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) নয়ন কুমার রাজ বংশি জানান, সম্প্রতি একটি প্রতারক চক্র নকল বিড়ি (তামাকজাত দ্রব্য) তৈরী করে দেশের বিভিন্ন এলাকার বাজার গুলোতে বিক্রি করে আসছিল। ১ জুলাই দুপুরে মোংলা পৌর শহরে এ নকল বিড়িগুলো দুই ব্যাক্তি সল্প মুল্যে বিক্রি করছে এমন খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তার পাইকগাছা এলাকার রফিকুল ইসলাম ও কাইয়ুম নামের দুই ব্যাক্তিকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ৩৫ হাজার নকল তৈরী বিড়ি উদ্ধার করা হয়েছে। পরে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে এক জনকে ৮ হাজার ও অন্য জনকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টার দিকে পুনরায় বাগেরহাটের রামপাল এলাকার লিটন নামের অন্য একজন ৫০ হাজার নকল বিড়িসহ আটক করা হয়। এসময় তাকেও নকল বিড়ি বিক্রির অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা নকল বিড়িগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংশ করা হয়েছে। সহকারী কমিশনার ভুমি আরো জানায়, একটি প্রত্যারক চক্র সরকারের রাজস্ব ফাকীঁ দিয়ে নকল বিড়ি তৈরী করে তা লোকজনের মাধ্যমে বাজারজাত করছে। এ কারনে দেশের যুব সমাজ সল্প মুল্যে তামাকজাত দ্রব্য পেয়ে তারা নেশায় আশক্ত হচ্ছে। তাই আটককৃতদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাদের প্রথম পর্যায় জরিমানা করা হয়েছে। তবে প্রত্যারকদের বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানায় এ কর্মকর্তা।