ডিপ ফ্রিজে বিএনপি : জাহাঙ্গীর কবির নানক

ডেস্ক:দেশে করোনার এই সংকটময় পরিস্থিতির মধ্যেও বিএনপি জনগণের পাশে না থেকে ডিপ ফ্রিজে নিরাপদ চলে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

শুক্রবার বিকেলে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের চিকিৎসাধীন নেতারাসহ সবার সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাহাঙ্গীর কবির নানক এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের শুরুতে থেকে সারাদেশে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বিভিন্নভাবে সাহায্য-সহযোগিতা নিয়োজিত রয়েছে। পক্ষান্তরে বিএনপি নিরাপদ ডিপ ফ্রিজে চলে গেছে। সেখান থেকে মাঝে মাঝে কাগজে বার্তা পাঠাচ্ছে। বিশ্ব মানবের এই ক্রান্তিকালে মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে তাদের কাগজের বার্তা রাজনৈতিক বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। যা কোনো প্রকৃত রাজনৈতিক সংগঠন কাজ হতে পারে না। আমরা তাদের ডিপ ফ্রিজ থেকে বেরিয়ে এসে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মার যাওয়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত।

দোয়া ও মাহফিলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মকবুল হোসেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ, কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য বদরউদ্দিন আহমদ কামরানসহ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী এবং সারাদেশে ও প্রবাসে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সবার বিদাহে আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধু পরিবারের অন্যান্য সদস্যের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে প্রার্থনা করা হয়। একইসঙ্গে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সামরিক-বেসামরিক ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, প্রশাসন ও গণমাধ্যমকর্মীসহ করোনাভাইরাসে সৃষ্ট সংকট জয়ে নিয়োজিত সম্মুখ যোদ্ধাদের সুস্থতা ও মঙ্গল কামনা করা হয়।

এ সময় আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাজেদা চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, চিকিৎসাধীন সব নেতা-কর্মী ও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সবার সুস্থতা কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া চাওয়া হয়।

দোয়া ও মাহফিল অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, আ. ফ. ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস. এম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সাখাওয়াত হোসেন শফিক, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান, কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সাহাবুদ্দিন ফরাজী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, কৃষকলীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ্র, সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুসহ অনেকেই।

পিএনএস