গুপ্ত পরিতাপ : সালাহ্উদ্দীন সাগর

গুপ্ত পরিতাপ
সালাহ্উদ্দীন সাগর

বর্ষ দু’য়েক পূর্বে আমায় পর করে আকস্মাৎ চলে গেছে তােমার আপন নিকেতনে।

নিমন্ত্রণ করেছিল তিমির রাত্রে যাই যেন হেতা পত্রখানি পাওয়ার সাথে সাথে।

একটুও বিলম্ব করিও না বড় বেশি দরে পত্রখানি পৌছালাে তােমাতে
ওগাে আমায় যে ইহলােক ত্যাগিত হইবে তােমাতে আমায় রেখে।

তনু আমার বিষে নীল, পিয়াস যেন জলেশ্বর
ধরণী বুঝি আমায় এখনই করিবে পর।

শেষ মিমাংসাই জগদীশ্বর আমায় করিলে তােমার আঁখির পরিস্রুতজল।

নিমন্ত্রণ রইলাে এসাে, আমার শান্তি নিকেতন সমাধিপ্রাঙ্গণে

ইতি তােমার ইন্দ্রজালে বিন্যাস্তপ্রিয়া
যে তােমায় কাদিয়ে গেল আপন নিলয়ে।
দিয়ে গেল বিরহী প্রহরের তৃষ্ণাশিক্ত আহত পথের অন্তবিহীন ঠিকানা
আমায় ক্ষমা করাে বৈরাগ্যের পক্ষপাত (মৃত্যুর শখ)
করিলাে তােমার অচেনা।