ঢাকা থেকে জ্বর নিয়ে ফেরা যুবক করোনা পজেটিভ

মণিরামপুর, সংবাদদাতা :ঢাকা থেকে জ্বর নিয়ে যশোরের মণিরামপুরে ফেরা যুবক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে যশোর সিভিল সার্জন অফিস থেকে তার করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। আক্রান্ত তৌফিকুর রহমান (২৭) রাজধানীর কাকরাইলে অবস্থিত বেসরকারি চ্যানেল এসএ টিভির স্টাফ। তিনি ঢাকার বংশালে বাসা ভাড়া থাকতেন।
তৌফিকুর রহমান মণিরামপুরের বাসুদেবপুর গ্রামের খন্দকার আবু সালেকের ছেলে।
মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শুভ্রা রানী দেবনাথ বলেন, জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত ৩১ মে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নমুনা দেন তৌফিকুর। পরে শুক্রবার (১২ জুন) রাত ১১ টার দিকে তার করোনা পজেটিভ ফলাফল আসে। এখন তিনি নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে সুস্থ আছেন।
শনিবার (১৩ জুন) দুপুরে মোবাইল ফোনে আক্রান্ত তৌফিকুর রহমান জানান, ঢাকায় রিকশাযোগে অফিসে যাওয়ার পথে বৃষ্টিতে ভিজে ১৯ মে ঠান্ডা জ্বরে আক্রান্ত হন তিনি। এরপর অফিসে বিষয়টি জানালে তাকে ছুটি দেওয়া হয়। গত ২৩ মে তিনি মণিরামপুরে বাড়িতে ফিরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নেওয়া শুরু করেন। কিন্তু তার শরীরে জ্বর থেকে যায়। সন্দেহ হওয়ায় গত ৩১ মে যশোর জেনারেল হাসপাতালে করোনা পরীার জন্য নমুনা দেন তিনি।
তৌফিকুর রহমান দাবি করেন, নমুনা দেওয়ার দুই দিন পর থেকে আমি সম্পূর্ণ সুস্থ। আমার জ্বর আসার সময়সীমা ২৫-২৬ দিন পার হয়েছে। যদিও শুক্রবার করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। আমি নিশ্চিত এখন আমার দেহে করোনা নেই।
এদিকে খবর পেয়ে শনিবার বিকেলে করোনা আক্রান্ত তৌফিকুর রহমানের খবর নিতে তার বাড়িতে যান ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী। এসময় ডা. মুসাব্বিরুল ইসলাম রিফাত, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবী টিমের মেন্টর আল হেলাল মামুন উপস্থিত ছিলেন।
ডা. রিফাত বলেন, করোনা পজেটিভ তৌফিকুর রহমান এখন সুস্থ আছেন। তার দেহে করোনার কোন উপসর্গ বিদ্যমান নেই। নিজ বাড়িতে তার আইসোলেশন নিশ্চিত করা হয়েছে। সেখানে রেখে তার চিকিৎসা চলবে। দুই একদিনের মধ্যে তার দ্বিতীয় নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
মণিরামপুরে এই পর্যন্ত ১৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১১ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্ত বাকি তিনজন হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।