উই কান্ট ব্রেদ : অমিতাভ মীর

উই কান্ট ব্রেদ
অমিতাভ মীর

বর্ণবাদের বিষাক্ত বাতাসের প্রভাবে শতাব্দী আগে
কঁকিয়ে উঠেছিলো মানুষ-, “উই কান্ট ব্রেদ।”
যে সময়ে সভ্যতা ও প্রযুক্তি আকাশের প্রান্ত ছুঁতে চলেছে;
তখনও, মানুষ অবলীলায় অস্বীকার করছে মনুষ্যত্বকে।

এখনও মানুষকে বর্ণবাদ শ্বাসরুদ্ধ করে মারে,
বর্ণবাদ বিরোধী বিশ্ব মোড়লের নিজেরই আঁতুড় ঘরে।
মার্টিন লুথার কিংকে হত্যার মধ্য দিয়েই
অমানুষের যে উত্থান হলো এ বিশ্ব চরাচরে;
এর দায় মানুষ কি পারবে এড়াতে?

মার্কিন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ দারেক চাউভিনের হাঁটু ঠেসে ধরলো
মিনিয়াপলিসের রাজপথে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের গলা,
কঁকিয়ে উঠেছিলো ফ্লয়েড; ‘ওহ্ গড! আই কান্ট ব্রেদ’। কি অমানবিক!

ফুঁসে উঠেছে জনতা, বিক্ষোভে উত্তাল মার্কিন সাম্রাজ্য,
প্রতিবাদ ও প্রতিরোধের পথেই অপশক্তি হটতে বাধ্য।
বাঘের খাঁচায় ছুঁড়ে দাও অমানুষ দারেক চাউভিনকে,
দেখুক মানুষ মনুষ্যত্বহীনের করুণ পরিণতি; বুঝে নিক
অমানুষের বেঁচে থাকার অধিকার নেই নন্দিত নিসর্গে।

অমিতাভ মীর
কবি ও গবেষক
চুয়াডাঙ্গা, বাংলাদেশ।