নরেন্দ্রপুরে সংঘর্ষ : চিকিৎসার দ্বায়ভার নিলেন তরুণ সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদ

রাসেল মাহমুদ, রূপদিয়া : যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামে ঘের সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ জনের চিকিৎসার দায় ভার নিলেন তরুণ সমাজসেবক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রাজু আহম্মেদ। উল্লেখ্য গত ৩১ মে নরেন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আনোয়ার দফাদারের ছেলে আলমগীর হোসেন বট্টু’র মাছের ঘের লীজ (চুক্তি) প্রদানকে কেন্দ্র করে এলাকার নরেন্দ্রপুর গ্রামের মৃত ইবাদাত আলীর ছেলে মকবুল হোসেন, তার ছেলে শহিদ হোসেন, মৃত খোকনের ছেলে লিটু, লুৎফার রহমানের ছেলে রানা ও দফাদার গ্রুপের সাথে সংঘর্ষ বাধে। প্রায় দু’ঘন্টা ব্যাপী দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলে। এসময় পুরো এলাকাজুড়ে সাধারণ মানুষের মাঝে আতংঙ্কের সৃষ্টি হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে মারাত্বক আহত অবস্থায় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৫’জনকে উদ্ধার করে যশোর সদর হাসপালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে পরদিন আহত ব্যক্তিদের দেখতে হাসপালে ছুটে জান তরুণ সমাজসেবক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো: রাজু আহম্মেদ রাজ। তিনি তুচ্ছ ঘটনায় এধরনে কর্মকান্ড’র তিব্র প্রতিবাদ জানিয়ে কার ইন্দনে নেক্কারজনক এধরনের ঘটনা ঘটেছে তা বের করে আইনের আওত্বায় নেওয়া দাবী জানান। এছাড়া আহত ৫’জনের সম্পূর্ন চিকিৎসা ব্যায় বহনের প্রতিশ্রুতী প্রদান করেন।