আবারও প্রমাণিত হলো : ড. শাহনাজ পারভীন

dr. shanaj parvin / Time Vision 24

আবারও প্রমাণিত হলো
ড. শাহনাজ পারভীন

আবারও প্রমাণিত হলো, এই স্বপ্নময় পৃথিবীতে বেঁচে আকাটাই বড় আশ্চর্য ঘটনা।

আবারও প্রমাণিত হলো এ পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে খুব বেশি কিছু জিনিসের প্রয়োজন হয় না
কি ঈদ, কি পার্বন কিংবা বড় কোনো আয়োজনে
নতুন পোশাক, আতর, সুবাস, মেহেদী, কোর্মা পোলাও,
আত্মীয়- স্বজন, সন্তান- সন্ততি উপস্থিত না থাকলেও
দিন চলে যায় দিনের নিয়মেই
রাত নেমে আসে নিরন্তর, নিরাপদ।

দিন যেখানে দিন নয়, জীবন যেখানে জীবন নয়;
মানুষ যখন নিজেকেই নিজে বিশ্বাস করতে পারে না,
নিজের হাত, নিজের চোখ, নিজের মুখ যখন নিজের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে,
আত্মীয় স্বজনের সাথে যখন হৃদয়ের উষ্ণতা থাকে না
বন্ধু বান্ধব যখন নিজেদের জীবনকেই বেশি ভালোবাসে
ভাইবোনের সম্পর্ক যখন দেয়া নেওয়ার মধ্যে আটকে যায়
সন্তান সন্ততি যখন কৃপন হয়ে যায় অন্তহীন
অসুস্থ বাবাকে যখন অকৃতজ্ঞ সন্তান ফেলে যায় রাস্তায়
অচল মাকে যখন অচল বস্তুর মতো ফেলে আসে জঙ্গলে
কোটি টাকা দান করার পরও যখন দায় নেয় না বাবামায়ের
মানুষ যেখানে নীতিহীন কুকুর আর
ত্রাণকর্তা যখন গায়েব করে গরিবের সম্পদ

ব্যাংকের কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা যখন মূল্যহীন হয়ে যায়
নিজের জমানো বিদেশি সম্পদ, বাড়ি যখন অকারণ হয়ে যায়
তখন আবারও প্রমাণিত হয় সূর্য উঠলেই তাকে আমরা দিন বলতে পারি না
চাঁদ উঠলেই তাকে আমরা রাত বলতে পারি না

আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলাম যখন মানুষের একমাত্র
পরম আত্মীয় হয়ে যায়
রাস্তার দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশবাহিনী যখন ভরসার স্থল হয়ে যায়
তখন আবারও প্রমাণিত হয়

এই স্বপ্নিল পৃথিবীতে
সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকাটাই বড় আশ্চর্য প্রাপ্তির ব্যাপার এখন।