বিড়ম্বনা :আলী আজগার শিকদার

বিড়ম্বনা
আলী আজগার শিকদার

আমি কি মানুষ? আছি বেঁচে থাকার ফলে এক মানুষ?
আপন যে ভাবগত নয় বোধগম্য,শত্রুতা এক ফানুস।
তোমার দর্শন আমি ঠকি ,ভাগ্য ব্যাধ আমায় কয় হারামি ।
তবু আমি ভালোবাসি, হয়না আমার একটু খানিক হুঁশ?

আশা পূর্ণ আঁধার গেলে আসবে সূর্য,সঙ্গে নতুন আলো।
ভাবনায় কাটে সময় আমা রাত পোহালে হবে ভালো।
স্বপ্ন শেষ যৌবন গেল,বৃদ্ধে এখন পা,আমায় বলে বুড়ো।
বলেছি আমি তোমা কাছে ,একটু খানি আলোক জ্বালো

একদিন আমি আসব ফিরে, ঘৃণাত্মক তোমা শহরে।
অযোগ্যতা সেদিন,আমা শহর আঁধার হবে সবার বহরে।
কেউ রাখনি নিজের করে হইনি যাদের একটু আপন।
হাল ছাড়িনী যাইনি দূরে দেখতে তামাশা, তোমায় ছেড়ে।

সবার মাঞ্চু থাকব আমি, সবান্ধবেই ভালোবাসবো
অনাহত হোক যত আমার তরে, আমি সংবরণে হাসবো
প্রথম বলতে নাইতো প্রেমে,হতাশ জমা আছে গভীরে।
বারবার হাজার বার আসুক প্রেম,থেমে থেমে তারে মানবো।

গভীর প্রেম ধোঁকাবাজি,শেষের দিকে টাকা না পেলে।
খুঁজে পাই কোথায় প্রেম,নেমে অগাধ সাগর তলে?
সোনার খনি সোনার মানুষ, হইনা কারো পোষণ স্বজন?
আসাদিত আপন পথে মানুষ হতে,অমানুষে ভাজ্য তেলে?

আলী আজগার শিকদার
চুয়াডাঙ্গা জেলা