হয়তো এভাবেই বিবর্তিত জীবন : অভ্রনীল আজাদ

হয়তো এভাবেই বিবর্তিত জীবন
অভ্রনীল আজাদ

গহীন রাত্রির বুক ছুঁয়ে নেমে আসে অদম্য সরীসৃপ,
আমি ঝাঁপ দেই ঢাল বেয়ে অথৈ নদী;
সমস্ত আকাশ জুড়ে নেচে ওঠে তা তা থইথই মেঘ;
গাঢ় আলিঙনে তার চুয়ে পড়ে নিষিক্ত বুদবুদ।
আমি ডুব দেই, সাঁতরাই, থেমে থেমে নেই দম,
প্রশ্বাসে ছোটে পাগলা হাওয়া শিরশিরে গরম।
কাক ডাকা ভোরে ঘুম ভেঙে গেলে
আবারও ঝরনার তলে চলে ক্লান্তির স্নান।
মুছে ফেলে ক্লেদ, নোনাজল চলে আগামীর আয়োজন;
তবুও প্রাত্যহিক সব পাঠ ফেলে ছুটে চলে মন,
বিস্মৃতির আবছা আলোয় ঢাকা কোন অচেনা নগর;
যেখানে এখনো লুকিয়ে আছে নির্মল সুখ।
হায়! কত দিন দেখিনা সেই প্রিয় মুখ।
প্রশ্ন করনা এ কেমন বেঁচে থাকা, এ কেমন প্রেম?
হয়তো অনন্ত কাল ধরে এভাবেই বিবর্তিত জীবন।

অভ্রনীল আজাদ
চিকিৎসক
ঠাকুরগাঁ, রাজশাহী