সর্বনাশা ‘আম্ফান’ এ যশোর বিধ্বস্ত : যাদু

সর্বনাশা ‘আম্ফান’ এ যশোর বিধ্বস্ত
যাদু
১৬ বছর আগেই নামকরণ করা হয়েছিল, সেটা গত বুধবার বাংলায় আছড়ে পড়ে। ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ ২০০৪ সালে ঝড়ের এই নামটি দিয়েছিল থাইল্যান্ড। ‘আম্ফান’ শব্দের মানে হল আকাশ। কিন্তু নিকট অতীতে এটি ত্রাশের আর এক নাম হয়ে উঠেছে।
বছর খানেক আগে তৈরি হওয়া ঝড়ের তালিকার এটাই শেষ ঝড়। আম্ফানের আগে যে ঘূর্ণিঝড়টির সম্মুখীন হয়েছি আমরা, সেটির নাম ‘ফণী’। এই ঝড়ের নাম দিয়েছিল বাংলাদেশ, যার অর্থ হল সাপ।

কী ভাবে নামকরণ করা হয় এই ঘূর্ণিঝড়গুলির?

বিশ্বজুড়ে প্রতিটি সমুদ্র অববাহিকায় যে ঘূর্ণিঝড়গুলি তৈরি হয়, আঞ্চলিক ভাবে বিশেষায়িত আবহাওয়া কেন্দ্র এবং ক্রান্তীয় ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কতা কেন্দ্রগুলির দ্বারা সেগুলির নামকরণ করা হয়। ওয়ার্ল্ড মেটিরিওলজিকাল অর্গানাইজেশন, ইউনাইটেড নেশন্স ইকোনমিক অ্যান্ড সোশ্যাল কমিশন ফর এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগর বা ডব্লিউএমও ইস্কাপের তালিকাভূক্ত দেশগুলি বিভিন্ন ঝড়ের নাম প্রস্তাব করে। এই তালিকায় রয়েছে ভারত, বাংলাদেশ, মায়ানমার, পাকিস্তান, মালদ্বীপ, ওমান, শ্রীলঙ্কা এবং থাইল্যান্ডের নাম। এই অঞ্চলে উদ্ভুত ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণ করে এই দেশগুলিই।

দক্ষিণ পশ্চিমে আঘাত করেছিলো ঘূর্ণিঝড় সুপার সাইক্লোন আম্ফান। ঘূর্ণিঝড়ে খুলনা সাতক্ষীরা ও যশোর এলাকার অনেক গাছপালা ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কাঁচা পাকা ঘর বাড়ি। গোটা এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ। শুধু যশোরেই মৃত্যু ১২ যা এ যাবৎকালে সব থেকে ভয়াবহ।

সারদিনই কমবেশি বৃষ্টি হয়েছে তবে সন্ধ্যা রাতে প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। গো গো শব্দে বাতাস যেনো গর্জন তুলেছিলো। একটু উপরেই ছিলো এর প্রবাহ। উঁচু তলার লোকেরা রীতিমত ঠকঠক করে কেঁপেছে, যদিও সর্বনাশ যা হবার হয়েছে সেই চালচুলাহীন মানুষদেরই।

যশোর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ঘন্টায় ১০৪ কিলোমিটার বেগে ঝড় বয়ে গেছে। যা কয়রা, পাইকগাছা ও দাকোপের নিম্নাঞ্চলের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে দিয়েছে। সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালীনি ইউনিয়নের চুনা নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙে বিরাট এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

দীর্ঘ আড়াই মাস করোনার সাথে লড়ে আমরা কোন রকম টিকে ছিলাম হঠাৎ এই আঘাত। করোনায় যশোরে এখন পর্যন্ত প্রাণহানীর ঘটনা ঘটেনি অথচ মড়ার পরে খাড়ার ঘা আম্ফান কেড়ে নিলো একগুচ্ছ তাজা প্রাণ,নষ্ট করলো ক্ষেতের ফসল, পানের বরজ, আমের বাগান সহ জনজীবন। বিশের বিষে প্রতিনিয়ত নীল হচ্ছে আমাদের সাজানো পৃথিবী।

যাদু
বাচিক শিল্পী
যশোর।