অভিশাপ : মাহমুদা রিনি

মাহমুদা রিনি । টাইম ভিশন ২৪

অভিশাপ
মাহমুদা রিনি
কবিতা লিখতে ভুল হয়। কবিতারা প্রতিবাদ করে ওঠে। আর্তনাদ করে ছন্দ মাত্রা লাইন। ওদের শরীর ধর্ষিত।
ধর্ষকের আঁচড়ে কামড়ে ক্ষত বিক্ষত।
কবিতারা সারিবদ্ধ হয়, শিশু, কিশোরী, যুবতী থেকে নারী
এক একটি ধর্ষিত কবিতা।
ওরা চিৎকার করে– আমরা আহত, রক্তাক্ত,মৃত।
আর তোমরা যারা কলম হাতে আমাদের বিন্যাস করো, সুসজ্জিত টেবিলে ধর্ষণের বর্ণনা সাজাও–
ঘৃণা তোমাদের প্রতি। তোমাদের লজ্জা হয় না,
তোমরা নিজেদের মানুষ বলো, তোমাদের মনুষ্যত্বও কি
আজ ধর্ষিত নয়?
ওরা চিৎকার করে বলে—- ধর্ষক তোমরা কারা?
কোথা থেকে এসেছো? একদল নপুংসক শিশ্নধারী কাপুরষ! তোমাদের জন্ম কোথায়? কোন নারীর গর্ভে নিশ্চয়ই নয়! নারী তোমাদের কাছে লোভনীয় মাংসপিণ্ড। ছোট্ট শিশু, স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি পড়া ছাত্রী, বস্তির মেয়েটি, গৃহকর্মী, গৃহবধূ কেউই তোমাদের হায়েনা চক্ষু নৃশংস পাশবিকতা থেকে রেহাই পায় না।
বিক্ষুব্ধ, ধর্ষিত কবিতারা অভিশাপ দেয়—
তোমাদের মত ধর্ষকদের যারা সহ্য করে,
তোমাদের যারা লালন করে,
তোমাদের মৃত্যুদণ্ড যারা রহিত করে,
আমাদের চেয়েও কঠিন নৃশংস শাস্তির থেকে
তোমাদের যারা আড়াল করে—
অভিশাপ দিচ্ছি সেই সব ক্ষমতাধরদের,
অভিশপ্ত জাতি হিসাবে ধ্বংস হবে তোমরাও।
অভিশাপ দিচ্ছি ধ্বংস হোক তোমাদের শিক্ষা,
ধ্বংস হোক তোমাদের শিশ্নধারী পুরুষ সভ্যতা,
ধ্বংস হোক পৃথিবী।

মাহমুদা রিনি
অর্থ সম্পাদক
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ
যশোর জেলা শাখা