সেনাবাহিনীর আয়োজনে “১ মিনিটে বাজার”

সেনাবাহিনীর আয়োজনে "১ মিনিটে বাজার" । টাইম ভিশন ২৪

আসাদুজ্জামান শাওন, নিজস্ব প্রতিনিধি:
সাম্প্রতিক কোরনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী অফিস-আদালত কল-কারখানা, স্কুল এবং যানবাহন বন্ধ থাকার কারণে নিম্ন এবং স্বল্প আয়ের মানুষগুলো আর্থিক সংকটের মুখোমুখি পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে “এক মিনিটের বাজার’ – ”থাকবো ঘরে সুস্থ বেশ, আপনি হাসলে হাসবে দেশ”, এই প্রতিপাদ্য সঙ্গে নিয়ে দারিদ্র সীমার নিচে থাকা জনগণের পাশে দাঁড়াতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এই কার্যক্রমের মাধ্যমে প্রান্তিক চাষীদের নিকট হতে সরাসরি সবজি ক্রয়ের মাধ্যমে গ্রামীণ অর্থনীতি সচল রাখতে সাহায্য করা যাবে। একিই সাথে বিনামূল্যে কর্মহীন এবং হতদরিদ্র মানুষের মধ্যে চাল ও মৌসুমী সবজি বিতরণের মাধ্যমে খাদ্য সংস্থান করার কাজ চলমান।

১ মিনিটে বাজার! শুনতে অবাক লাগলেও চট্টগ্রামে এমনই একটি ব্যতিক্রমী বাজার চালু করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। যেখানে ১ মিনিটে প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে পারছেন মানুষ। করোনা দুর্যোগে অসহায় মানুষের জন্য এই মানবিক উদ্যোগ বুধবার (১৩ ই মে) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর জমিয়তুল ফালাহ ময়দানে সেনাবাহিনীর ৩৪ কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড আয়োজন করে। ব্যতিক্রমী এই বাজারের যেখানে পসরা সাজানো হয় চাল আর পাঁচ ধরনের সবজি সহ ৯ জাতীয় পণ্যের যার সবটি নেবার সুযোগ ছিল প্রত্যেকের।

এটি নামেই বাজার। বাস্তবে আপজনদের হাতে উপহারসামগ্রী তুলে দেবার আয়োজন। যা হতে পারে কঠিন এই সময়ে জীবন রক্ষার নিয়ামক।
করোনা দুর্যোগে অসহায় মানুষকে সহায়তা দিতেই এমন উদ্যোগ। প্রথমদিনে উপহারসামগ্রী দেয়া হয় ১ হাজার মানুষকে। পর্যায়ক্রমে যার আওতায় আসবে ২০ হাজার।

সেনাবাহিনীর উন্নয়ন অংশীজনদের সহযোগিতায় সাতকানিয়া ও সীতাকুণ্ড থেকে কেনা হয় সবজী। তবে তা দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে বিক্রি না করে উপহার হিসেবে দেয়া হয়। তাতে উপকৃত হয়েছে দুপক্ষই।

সমগ্র আয়োজনকে ‘ত্রাণ সাহায্য নয়, সেবা‘ এই দৃষ্টিভঙ্গিতে বিন্যস্ত করা এবং সবাইকে বাজার করতে আসার উপলব্ধি দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই প্রচেষ্টায় যাতে প্রকৃত হতদরিদ্র জনগণ সহায়তা পায় তা নিশ্চিত কল্পে একটি লিষ।ট তৈরি করা হয়েছে। ডাটাবেজ প্রস্তুতকল্পে মাঠ পর্যায়ে জরীপ কার্য পরিচালনাকালীন সময়ে প্রতিটি হতদরিদ্র পরিবারকে একটি করে টোকেন সরবরাহ করা হয় যার মাধ্যমে তারা ‘এক মিনিটের বাজার‘ হতে পছন্দ মতো বাজার করেন।
শহরের নির্ধারিত স্থানে প্রতিদিন ন্যূনতম এক হাজার পরিবারের মধ্যে বিনামূল্যে সবজি বিতরণ করা হয়। পর্যায়ক্রমে যার আওতায় আসবে ২০ হাজার।
টেবিলে টেবিলে সাজানো তাজা শাক-সবজির প্যাকেট। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে একজন করে আসছেন। পছন্দের প্যাকেটটি নিয়ে যাচ্ছেন মাত্র এক মিনিটে, তাও ফ্রিতে।দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীর এমন মানবিক উদ্যোগে খুশি হতদরিদ্র মানুষ।

সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমেদ তানভির মাজহার সিদ্দিকী সাংবাদিকদের বলেন, এ ফ্রি সবজি বাজার চট্টগ্রামের প্রতিটি এলাকায় যাবে। আগামী একমাস এলাকাভিত্তিক প্রতিদিন এক হাজার পরিবারকে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ফ্রি সবজি দেওয়া হবে। সবজির মধ্যে থাকবে মিষ্টি কুমড়া, লাউ, ঢেঁড়স, করোল্লা, পটল, চিচিঙ্গা ইত্যাদি ।

এ সকল সবজি সেনাসদস্যরা সরাসরি প্রান্তিক চাষীদের নিকট হতে মাঠ পর্যায়ে সংগ্রহ করছেন। নিয়ম মেনেই একটি পরিবার এই বাজার থেকে ন্যূনতম ৯০ থেকে ১০০ টাকা সমমূল্যের চার থেকে পাঁচ দিন চলার মত সবজি সংগ্রহ করতে পারছেন। এছাড়াও প্রতিটি পরিবারকে ৫ কেজি চাল, আলু, সাবান এবং মাস্ক দেয়া হচ্ছে ।

এছাড়া আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড ‘এক মিনিটে ঈদের বাজার‘ আয়োজন করেছে।বুধবার সকাল থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়।

এছাড়াও হতদরিদ্র পরিবারের সদস্যরা এই বাজার থেকে শাড়ি লুঙ্গি সেমাই-চিনি,দুধ ইত্যাদি নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী নিতে পারছেন।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়,তারা চান নিম্নআয়ের মানুষ এই দুর্যোগময় পরিস্থিতি সাহসের সাথে মোকাবেলা করবে এবং সকলের সাথে ঈদ আনন্দ উপভোগ করবেন।