মাস্ক হিসেবে নারীদের জন্য নেকাবই শ্রেষ্ঠ

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ৩৮ জন ব্রিটিশ ও আমেরিকান নেকাব পরিধানকারী নারীর ওপর গবেষণা করা হয়। এর মধ্যে ছিলেন খ্রিস্টান, ইহুদি, নাস্তিক, কালো, সাদা, আমেরিকান ও আফ্রিকান, আরব এবং এশিয়ান।

এক গবেষণা নিশ্চিত করে যে, অমুসলিম দেশগুলোতে মুসলিম নারীরা ইসলামী পোশাক পরার কারণে নির্যাতনের শিকার হয়। অনেক সময় এই পোশাক পরিধানকারীকে অসহায়, সেকেলে ভাবা হয় ও ভিন্ন দৃষ্টিতে দেখা হয়। এমনকি বিমানবন্দরগুলোতেও নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়।

তবে করোনা মহামারীর এ সময়ে এসে মুসলিম অমুসলিম সকলেই মাস্ক সদৃশ নেকাব ব্যবহারের দিকেই ঝুকছেন।

নেকাব ব্যবহারকারি এসব নারীরা বলেছেন, তারা নেকাব ব্যবহার করে এক স্বর্গীয় শান্তি উপভোগ করে। আর এই অনুভূতি তাদেরকে স্রষ্টার কাছাকাছি নিয়ে যায়। অবশ্য অনুভবের বিষয়টি তাদের ইসলাম চর্চার ওপর। কিন্তু তাদেরকে প্রায়ই এই নেকাবের কারণে ধর্মবিদ্বেষ এমনকি রাস্তায় যৌন নির্যাতনের শিকারও হতে হয়।

এদিকে, ফ্যাশন ডিজাইনাররাও চেহারা ঢাকার এই উপকরণটি আরও আধুনিক করার চেষ্টায় ব্যস্ত। এখন নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে সবাই তার দৃষ্টিভঙ্গী পরিবর্তন করে নেকাব সদৃশ মাস্ক ব্যবহার করছে।