যশোরের আলোচনায় যুবলীগ নেতা জুয়েলের দাফন যোদ্ধার দল

যশোরে যুবলীগ নেতা জুয়েলের দাফন যোদ্ধার দল । টাইম ভিশন ২৪

জি এম অভি : যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান জেলা যুবলীগের অন্যতম নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েলের দাফন যোদ্ধা দলের আলোচনা যশোর জুড়ে ।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বা সন্দেহভাজন মৃতদেহের দাফনসহ সৎকার করতে প্রস্তুতি নিয়েছেন যশোরে শহরের পুরাতন কসবায় ১৫ সদস্যর একটি দল। প্রাথমিকভাবে যশোর পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে এ কাজটি করার উদ্যোগ নিয়েছে দলটি। যশোরের যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েলের নেতৃত্বে দলটি এ কাজে এগিয়ে এসেছেন। মুসলিম ধর্মের পাশাপাশি অন্য ধর্মের অনুসারীদের মরদেহের সৎকারের দায়িত্বও তারা পালন করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন দলটির নেতৃত্বে থাকা যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল।

জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে আতংকে রয়েছে গোটা দেশ। করোনায় আক্রান্ত বা সন্দেহভাজন মৃত্যুতে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষের মনে। সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে আপজনও মৃতদেহ স্পর্শ করছে না। মরদেহ দাফনের জন্য কেউ এগিয়ে আসছে না। এমন পরিস্থিতিতে মরদেহ সমাহিত করার জন্য যশোর শহরের পুরাতন কসবায় ১৫ জনের একটি দল গঠন করা হয়েছে। দলটি নেতৃত্বে দিচ্ছেন যশোর যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল। করোনা বা অন্য কোন কারণে যশোরে কেউ মারা গেলে মৃতের গোসল এবং দাফনের কাজে স্বেচ্ছায় অংশ নেওয়ার সকল প্রস্তুতি নিয়েছেন দলটি। এজন্য গত মঙ্গলবার ১০ জন পুরুষ ও ৫ জন নারীর এই দলকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুসারে করোনায় মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তির দাফন বা সৎকারে নিজেদের সুরক্ষিত রেখে কিভাবে দাফনকাজ সম্পন্ন করতে হবে সেটার প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। প্রশিক্ষণের পাশাপাশি দলের প্রত্যেকটি সদস্যকে দেওয়া হয়েছে পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও অন্যান্য নিরাপত্তা সামগ্রী। স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি এসকল সদস্যকে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার ১৫ দিনের খাদ্য সামগ্রী উপহার দিয়েছেন। এই উদ্যোগে প্রথম থেকেই মানসিক, আর্থিকভাবে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এ বিষয়ে যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল বলেন, করোনার আতংকে গোটা দেশবাসী। করোনার এ সময়ে সাধারণ রোগীরা মারা গেলে ভয়ে দাফন কার্যে এগিয়ে আসছেন না কেউ। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বা সন্দেহভাজন মৃতদেহের দাফনসহ সৎকারকাজ করার জন্য ১৫ সদস্যদের একটি দল গঠন করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়মমাফিক ইতোমধ্যে সকল প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে তাদের। তাছাড়া দাফন কার্যে ব্যবহৃত সকল সরঞ্জামও তাদের দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দাফনকার্যে লোক পাওয়া যাচ্ছে না, এমন পরিস্থিতিতে তাদের জানানো হলে অংশ নেবেন তারা। খবর পাওয়া মাত্রই সেখানে পৌঁচ্ছে যাবে দাফন যোদ্ধার দলটি। দলটি করোনাভাইরাসে মৃত্যুসহ অন্যান্য রোগে মৃত্যু বরণকারীদের দাফন কাজ করবেন তারা।

উল্লেখ্য, শফিকুল ইসলাম জুয়েল করোনা সংকটের এই মুহুর্তে মৃত মানুষের দাফন সম্পন্নের এমন উদ্যোগের পাশাপাশি কর্মহীন অসহায় মানুষের বাড়িতে বাড়িতে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছেন তিনি। তার এ নন্দিত উদ্যোগে সাধারণ মানুষের মাঝে সাড়া ফেলেছে।

শফিকুল ইসলাম জুয়েল বলেন , মানুষ মানুষের জন্য আসুন আমরা সকলে মিলে মানুষের সেবায় কাজ করি ।