অকাল মৃত্যু : একটি ভুল শব্দের প্রয়োগ ও ইসলামিক দৃষ্টিভংগী : মোঃ ফারুক ইকবাল

মোঃ ফারুক ইকবাল যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ । টাইম ভিশন ২৪

অকাল মৃত্যু : একটি ভুল শব্দের প্রয়োগ ও ইসলামিক দৃষ্টিভংগী
মোঃ ফারুক ইকবাল

আমরা ইদানিংকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে অল্প বয়সে কারো মৃত্যু হলে দেখতে পাচ্ছি যে- তাতে হেড লাইন দেওয়া হচ্ছে যে- অমুকের “অকাল মৃত্যুতে” আমরা গভীর ভাবে শোকাহত। এখন দেখা যাক এই “অকাল মৃত্যুর” বিষয়ে ইসলাম কি বলে ?মানুষ মরণশীল। শুধু মানুষ নয়, যাদের জীবন আছে তাদের প্রত্যেককেই একদিন মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। তবে হঠাৎ কেউ মারা গেলে সেই মৃত্যুকে আমরা অনেকেই ‘অকাল মৃত্যু’ বলে। কিন্তু ইসলামের দৃষ্টিকোণ থেকে কারো আকস্মিক মৃত্যু হলে সেই মৃত্যুকে অপমৃত্যু বা অকাল মৃত্যু বলা যাবে কি? এ বিষয়ে মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিয়েছেন। ‘প্রতিটি প্রাণ মৃত্যুর স্বাদ আস্বাদন করবে, তারপর আমার কাছেই তোমরা প্রত্যাবর্তিত হবে’। {সুরা আল-‘আনকাবুত, আয়াত : ৫৭}। ‘প্রতিটি প্রাণ মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করবে; আর ভালো ও মন্দ দ্বারা আমি তোমাদেরকে পরীক্ষা করে থাকি এবং আমার কাছেই তোমাদেরকে ফিরে আসতে হবে’। {সুরা আল-আম্বিয়া, আয়াত : ৩৫}। ‘প্রতিটি প্রাণী মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করবে। আর অবশ্যই কিয়ামতের দিনে তাদের প্রতিদান পরিপুর্ণভাবে দেয়া হবে। সুতরাং যাকে জাহান্নাম থেকে দুরে রাখা হবে এবং জান্নাতে প্রবেশ করানো হবে সে-ই সফলতা পাবে। আর দুনিয়ার জীবন শুধু ধোঁকার সামগ্রী’। {সুরা আলে ইমরান, আয়াত : ১৮৫}
মৃত্যু সুনিশ্চিত জানার পর এখন আমাদের জানা দরকার, অকাল মৃত্যু বলতে কী বুঝায়? যে মৃত্যু তার কালে তথা যথাসময়ে হয়নি তাকেই অকাল মৃত্যু হিসেবে গণ্য করা হয়। অকাল মৃত্যু শব্দটি ইসলামী চেতনার সাথে সঙ্গতিপুর্ণ নয়। কারণ, প্রতিটি মানুষের মৃত্যুর মতো তার মৃত্যুক্ষণও অবধারিত ও সুনির্দিষ্ট। সাধারণ বিবেচনায় কোনো মৃত্যু অকালে ঘটলেও বাস্তবে কিন্তু কোনো মৃত্যুই অকালে ঘটে না। প্রতিটি মৃত্যুই বরং স্বকালে অর্থাৎ তার নিজস্ব কাল বা সময়েই ঘটে। মানুষের জন্মের অনেক আগেই তার এ মৃত্যুক্ষণ লিখিত হয়েছে। সুনির্ধারিত ওই সময়ের এক সেকেন্ড আগে কিংবা এক মুহ‚র্ত পরেও কারো মৃত্যু হয় না। পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তা‘আলা বলেছেন-‘আর প্রত্যেক জাতির রয়েছে একটি নির্দিষ্ট সময়। অতঃপর যখন তাদের সময় আসবে, তখন তারা এক মুহুর্ত বিলম্ব করতে পারবে না এবং এগিয়েও আনতে পারবে না’। {সুরা আল-‘আরাফ, আয়াত : ৩৪}। ‘তিনিই তোমাদেরকে মাটি থেকে সৃষ্টি করেছেন। তারপর শুক্রবিন্দু থেকে, তারপর ‘আলাকা’থেকে। অতঃপর তিনি তোমাদেরকে শিশুরূপে বের করে আনেন। তারপর যেন তোমরা তোমাদের যৌবনে পদার্পণ কর, অতঃপর যেন তোমরা বৃদ্ধ হয়ে যাও। আর তোমাদের কেউ কেউ এর পুর্বেই মারা যায়। আর যাতে তোমরা নির্ধারিত সময়ে পৌঁছে যাও। আর যাতে তোমরা অনুধাবন কর’। {স‚রা আল-মু‘মিন, আয়াত : ৬৭}। এ আয়াতগুলো থেকে বুঝা যায় প্রতিটি মানুষের মৃত্যুক্ষণ সুনির্ধারিত। যিনি যখন যেভাবেই মারা যান না কেন আল্লাহর জ্ঞানে তা সুনির্দিষ্ট। অতএব সব মৃত্যুই সঠিক সময়ে হয়। কোনো মৃত্যুই অকালে হয় না। কাজেই আমাদের উচিত ইসলামের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী “অকাল মৃত্যু” শব্দটি পরিহার করে শুধুমাত্র “মৃত্যু” শব্দ ব্যবহার করা।

 

লেখক :  যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ