সাগরদাঁড়ি মাইকেল মধুসূদন ইনস্টিটিউশনের শিক্ষক সদস্য নির্বাচনে দুই প্রার্থী নিয়ে ফুঁসে উঠেছে স্থানীয়রা

টাইমভিশন২৪,যশোর অফিস: সাগরদাঁড়ি মাইকেল মধুসূদন ইনস্টিটিউশনের সাধারণ শিক্ষক সদস্য নির্বাচন আগামী ১১ অক্টোবর২০২২ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষক সদস্যপ্রার্থী ৫জন তার মধ্যে ২ জন শিক্ষক দণ্ডিত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা লিখিত অভিযোগ করেছেন বিভিন্ন দপ্তরে।

সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষক সদস্য পদে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। ১৮ সেপ্টেম্বর হতে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র গ্রহণ ও জমাদান প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র বাছাই ২১ সেপ্টেম্বর প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৫ সেপ্টেম্বর এবং নির্বাচন আগামী ১১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। যশোরের কেশবপুর উপজেলার সাগরদাঁড়ী  মাইকেল মধুসূদন ইনস্টিটিউশন একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

যার ফলে এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কোনরকম দুর্নীতি সহ্য করা হবে না এবং কোনো রকম অনৈতিক কিছু দেখলে এলাকাবাসী তা মেনে নেবে না বলে জানান স্থানীয়রা।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গভর্নিং বডি ও ম্যানেজিং কমিটি প্রবিধানমালা ২০০৯-১১ বর্ণিত আছে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্বার্থবিরোধী বা ইহার সুনাম নষ্ট হয় এরূপ কোনো কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেন বা কোন ভাবেই হতে সহযোগিতা করেন তবে উক্ত ব্যক্তি ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হিসেবে অযোগ্য হবেন।

এই নীতিমালার আলোকে মো: নজরুল ইসলাম ও মফিজুল ইসলাম সাধারণ শিক্ষক সদস্য পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন নীতিমালা বহির্ভূত উল্লেখ করে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেন, শিক্ষার্থী অভিভাবক মো: আব্দুল কুদ্দুস।

স্কুল মার্কেটে ঘর বরাদ্দ নেয়া নাথ ক্লিনিক এন্ড ফার্মেসির স্বত্বাধিকারী অমলেশ চন্দ্র নাথ বলেন,স্কুল মার্কেটের বরাদ্দের সময়ও শিক্ষক নজরুল ইসলাম এবং মফিজুল ইসলাম দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়েছিল। তারা জামাত-বিএনপি’র লোক এবং তাদের বিরুদ্ধে যে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে সেটি সম্পূর্ণ সত্য আমরা চাই দুর্নীতিবাজরা যেন এই পথে না আসতে পারে। অভিযুক্ত শিক্ষক মো: নজরুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,এগুলো ষড়যন্ত্র।

অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর রহমান বুলু তার মুঠো ফোনটি রিসিভ করেননি। সাগরদাঁড়ি মাইকেল মধুসূদন ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কুমার চৌধুরী বলেন,দোকানঘর নির্মাণ কাজে অনিয়মের জন্য ৫ জন শিক্ষককে ম্যানেজিং কমিটি জরিমানা করেছিলেন এক লক্ষ টাকা করে এবং বর্তমানে তার ভিতর দুই জন শিক্ষক সদস্য পদে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত জানান,শিক্ষক সদস্য পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন,মোঃ নজরুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান বুলু দুই জনই দুর্নীতিগ্রস্ত লোক।

সাবেক মন্ত্রী প্রয়াত ইসমত আরা সাদেক যখন প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন তখন স্কুল মার্কেট নির্মাণ কাজে ওই দুই শিক্ষকের দুর্নীতি ধরা পরে এবং এক লক্ষ টাকা করে জরিমানা দেয়। যার ফলে ইউনিয়নবাসী ফুঁসে উঠেছে।

জানতে চাইলে কেশবপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এএসএম জিল্লুর রশিদ বলেন,প্রতিষ্ঠানের মঙ্গলের জন্য যা যা প্রয়োজন আমরা তাই করব দুর্নীতিগ্রস্ত মানুষ এখানে আসতে পারবে না।