ঝিকরগাছা আ.লীগে গ্রুপিং ভুলে এক মঞ্চে সকল নেতা

ঝিকরগাছা(যশোর)অফিস:

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মীসভা যেন নেতাকর্মীদের এক মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল। সকল গ্রুপিং ও মান অভিমান ভুলে উপজেলা পর্যায়ের সকল নেতৃবৃন্দকে এক মঞ্চে পেয়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে প্রাণ ফিরে এসেছে। এসময় সকল নেতৃবৃন্দ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহবান জানান। তবে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ও মনোনয়ন বঞ্চিতদের আবেগভরা ভরা বক্তব্য প্রতিটি নেতাকর্মীর মনে দাগ কেটেছে। অনেকেই ক্ষোভের বক্তব্য শেষ করে নিজের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নৌকার পক্ষে কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন।

বুধবার সকাল ১০টায় মিতালী হল রোডস্থ এমপি’র কার্যালয়ের সামনে কর্মীসভার সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুকুল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, যশোর—২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসির উদ্দীন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আগামী ১১ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ যেসকল প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছেন, তাদের বিজয়ী করার লক্ষ্যে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। দলীয় সকল নেতাকর্মীকে মনে রাখতে হবে, নৌকা মার্কার প্রার্থীর পরাজয় মানে আওয়ামী লীগের পরাজয়। তিনি আরো বলেন, সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার কঠোর নির্দেশনা আছে। যে কারণে দলীয় প্রার্থী মেনে নিয়ে সবাইকে নৌকার পক্ষে নির্বাচন করতে হবে। তা নাহলে দলীয়ভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ—সভাপতি ও পৌর মেয়র মোস্তফা আনোয়ার পাশা জামাল ও চৌধুরী রমজান শরীফ বাদশা, সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ, যুগ্নসম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মোস্তাফিজুর রহমান মুসা। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমিনুর রহমান, আব্দুর রাজ্জাক, মতিয়ার রহমান সর্দার, আশরাফ উদ্দীন, নওশের আলী, আমির হোসেন, শাহাজাহান আলী, খাইরুজ্জামান, আতাউর রহমান মিন্টু, গোবিন্দ চন্দ্র চ্যাটার্জি, নিছার আলী, ইউপি চেয়ারম্যান বদরউদ্দীন বিল্টু, সাবেক চেয়ারম্যান গিয়াসউদ্দীন, আওয়ামী লীগ নেতা আতাউর রহমান ঝন্টু, অধ্যাপক শরিফুল ইসলাম, রেফেজ উদ্দীন, উবাইদুর রহমান, শহিদুল ইসলাম খোকন, শাহাজান আলী, লিয়াকত আলী, রফিকুল ইসলাম বুলি, সোহরাব হোসেন, ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আব্দুস ছাত্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল কাদের আজাদ, প্রচার সম্পাদক মোর্তুজা ইসলাম বাবু, ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক সম্পাদক নাসিমুল হাবিব শিপার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাস্টার এনামুল কবীর, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অশোক দত্ত, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মীর বাবরজান বরুণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম, জেলা পরিষদ সদস্য ইকবাল আহমেদ রবি, মহিলা সদস্য শাহিনা আক্তার, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছিমা আরা চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবীর, পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দুলাল অধিকারী, জেলা যুবলীগের সহ—সভাপতি আজাহার আলী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্নআহবায়ক ছেলিমুল হক সালাম ও ইলিয়াজ মাহমুদ, উপজেলা যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম বাপ্পি, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী, যুবলীগ নেতা জাফিরুল হক, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি সামছুর রহমান, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ, যুগ্নআহবায়ক আজহারুল ইসলাম লাবু, পৌর যুবলীগ আহবায়ক একরামুল হক খোকন, যুগ্নআহবায়ক মুনিরুল আলম মিশর, কামরুজ্জামান মিন্টু, আলিমুল মৃধা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এহসানুল হাবিব শিপলু, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক আলম কৌশিক, মৎসজীবী লীগের আহবায়ক ফারুক হোসেন, সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম, তাতী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন, সম্পাদক রাজু প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক শাহিন—উল—কবীর।