যশোরে ভুয়া কবিরাজ আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক,timevision24.com :

যাশোরের কুয়াদায় মর্জিনা খাতুন নামে এক ভুয়া মহিলা কবিরাজ সহ তার স্বামীকে আটক করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,যশোর সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের বাজার সংলগ্ন বাজুয়াডাঙ্গা গ্রামের আলমগীরের স্ত্রী কথিত কবিরাজ মর্জিনা খাতুনকে স্থানীয় জনতা পুলিশে সোপর্দ করেছে। রোববার বিকাল ৪টার দিকে এলাকার এক হিন্দু মহিলা কথিত কবিরাজের কাছে তদবির আনতে যায়। তখন সে তাকে ঘরের ভিতরে নিয়ে তার মাথায় কোরআন শরীফ তুলে দেয়। এবং তাকে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে বলে। তখন সে রাজি না হলে একপর্যায়ে তার সাথে কথিত কবিরাজ বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। সে সময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ভুয়া কবিরাজ ধর্মের নামে বিভিন্ন প্রকার আপত্তিকর কথাবার্তা বলে। তখন স্থানীয় জনতার রোষানলে পড়ে ভুয়া কবিরাজ মর্জিনা খাতুন। তকন ওই জনতা প্রশাসনকে জানালেন তাৎক্ষণিক যশোর কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের এসআই মাইদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে হাজির হয় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ভুয়া কবিরাজ মর্জিনা খাতুন ও তার স্বামী আলমগীরকে আটক থানায় নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই মাইদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কুয়াদা বাজারে এক মহিলা ভুয়া কবিরাজ সেজে প্রায় ১মাস যাবত আশপাশের লোকজনকে বিভিন্ন রোগের তদবির দিয়ে আসছিল।
তারই ধারাবাহিকতায়, রোববার এলাকার এক হিন্দু মহিলা ওই কবিরাজের কাছে তদবির আনতে যায়। তখন সে ঘরের ভিতরে নিয়ে তার মাথায় কোরআন শরীফ তুলে দেয়। তখন সে আপত্তি জানালে তার সাথে এক পর্যায়ে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে।
ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয় জনতা ৯৯৯ ফোন করলে তাৎক্ষণিকভাবে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কথিত কবিরাজ মর্জিনা খাতুন ও তার স্বামী আলমগীরকে আটক থানায় আসি।
এ বিষয়ে এলাকাবাসি কথিত ভুয়া কবিরাজ মর্জিনা খাতুনকে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের উধর্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।