যশোরের সন্তান আশরাফুজ্জামানের বিস্ময়কর সাফল্য

টাইম ভিশন 24: যশোর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের প্রাক্তন ছাত্র তরুণ বিজ্ঞানী আশরাফুজ্জামান বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল
জেলা যশোর এর ঝিকরগাছা উপজেলার নাভারন পুরাতন বাজারে ০৭
অক্টোবর ১৯৯৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম আসাদুজ্জামান
মাতা সায়েরা জামান, ২০১৫ সাল থেকে যাত্রা শুরু হয় তার ইতিমধ্যে
অনেকগুলো প্রকল্প তিনি জাতীয় পুরস্কার পান এর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশর
রোড ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম।

প্রকল্প টি ২০১৭ সালে অগ্রযাত্রা শুরু হয় ২০১৭ সালে
প্রতিষ্ঠানিক পর্যায় থেকে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করে অনেক সুনাম
অর্জন করে ২০১৮ সালে চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা ২০১৮
জাতীয় পর্যায়ে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ এর হয়ে
প্রতিযোগিতা করেন । সেখানে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন।
এছাড়া আবিস্কারের খোঁজে জাতীয় পর্যায়ে সেরা ১০ জন
নির্বাচিত হন এবং আইডিবি এন্ড আইসিটি ইনোভেশন
এক্সপো ২০১৮ জাতীয় পর্যায়ের অংশগ্রহণ করেন এবং
গণভবণে জাতীয় সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। ২০১৯
সালে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস ২০১৯ এ
অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয়
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এমপি প্রকল্পটির
দেখন। ২০১৯ সালে প্রকল্পটির সবচেয়ে বড় অর্জন
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আমাদের
প্রকল্পটি অনুমোদন প্রাপ্ত হয়। তার এই উদ্ভাবনের
মাধ্যমে বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সড়ক
দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করবে। এতিমধ্যেই তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন চলো আইটি ,চলো ট্রান্সপোর্ট , চলো জিপিএস ট্রাকার ,চলো শপ সহ অনেক
সনামধন্য প্রতিষ্ঠান । তিনি হেড অফ ডেভেলপার হিসাবে ”আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুুরস্কার প্রাপ্ত সাইবার টিনস এ
কাজ করেছেন। তার একটি দক্ষ টিম আছে টিমের নাম : সাইক্লোন টিমের হেড : আশরাফুজ্জামান
টিম মেম্বার : সাগর হোসেন , আক্কাজ আলী , নুসরাত জামান।

এবিষয়ে আশরাফুজ্জামান বলেন, আমার ডেডিকেটেট টিম মেম্বারদের ব্যাতিত আমার
এই সাফল্য কোন দিন সম্ভব হত নাহ। ভবিষ্যতেও আমি আরো বড় বড় প্রকল্প আমার টিম মেম্বারকে সাথে নিয়েই তৈরি করবো ইনশাআল্লাহ।