প্রেসক্লাব রূপদিয়ার সাধারণ সম্পাদকের উপর হামলা; থানায় অভিযাগ

মাসুদ পারভেজ:
যশোর সদর উপজলার প্রেসক্লাব রূপদিয়ার সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক রাসেল মাহমুদের উপর জুয়াড়িদের হামলার ঘটনা ঘটেছে। এনিয়ে তিন জনের নাম উল্লেখ করে যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদকর্মী রাসেল মাহমুদ জানান, গত ৬ জুলাই আনুমানিক রাত ৯ টার দিকে প্রয়োজনীয় কাজ শেষে বাড়ী ফিরছিলেন পথিমধ্যে এশিয়ান মার্বেল ইন্ডাঃ এর ১’শ গজ পিছনে রফিক খানের চায়ের দোকানে মানুষের জটলা ও তাস খেলা দেখে দেশের বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যে জনসমাগম না করে দোকান ও তাস খেলা বন্ধ করতে বল্লে বখাটে ফরহাদ সাংবাদিক সম্পর্কে কটুক্তি ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে।

একপর্যায়ে লকডাউনের মধ্যে দোকান খুলে তাস খেলার দৃশ্য মোবাইলে ভিডিও ধারণ করতে গেলে হাটবিলা গ্রামের শাহাদাতের ছেলে ফরহাদ হোসেন (৩০), আব্দুর রহমানের ছেলে ইউনুস আলী (৪৫), ঈদ্রিস আলীর ছেলে লিটন হোসেন (৩৫) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জন রাসেল মাহমুদের উপর হামলা করে। এসময় স্থানীয়রা ছুটে আসলে হামলাকারীরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

এর পূর্বে একটি নোকেয়া মোবাইল সেট (যার মডেল নং ২৯৫) ও নগদ ২৫৫০/- টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় সাংবাদিক রাসেল মাহমুদ যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযাগ দায়ের করেন। নরেন্দ্রপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সুপ্রভাত মন্ডল অভিযোগটি তদন্ত করছেন।

এদিকে প্রেসক্লাব রূপদিয়ার সাধারণ সম্পাদকের উপর এই হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দ্রুত দোষীদের’কে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানিয়েছেন প্রেসক্লাব রূপদিয়ার উপদেষ্টা (দৈনিক লোকসমাজ পত্রিকার সাংবাদিক) আলমগীর কবির, সভাপতি (দৈনিক গ্রামের কাগজের সাংবাদিক) রবিউল খান, সহ-সভাপতি (দৈনিক প্রতিদিনের কথার সাংবাদিক) আকতারুজ্জাামান, সহ-সাধারণ সম্পাদক (দৈনিক খোলা কাগজের সাংবাদিক) মোঃ মহিউদ্দীন সানি, কোষাধক্ষ্য (দৈনিক যশোর পত্রিকার সাংবাদিক) শাহীন আলম, দপ্তর সম্পাদক (দৈনিক জন্মভূমি পত্রিকার সাংবাদিক) কামরুজ্জামান নয়ন, প্রচার সম্পাদক (দৈনিক প্রতিদিনের কন্ঠের সাংবাদিক) ইমরান খান, সদস্য আজিম বিশ্বাস, মাসুদ পারভেজ, আজিজুর রহমান, রিয়াজ উদ্দিন তুহিন, আব্দুল মজিদ ও আল-আমিন হোসেন।