মনিরামপুরে সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে ব্যক্তিগত পকুর ভরাট করার অভিযোগ

বিএম মিলন,স্টাফ রিপোর্টার:

যশোরের মনিরামপুর উপজেলার ব্রাক্ষণডাঙ্গা গ্রামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে ব্যক্তিগত পুকুর ভরাট করার অভিযোগ উঠেছে।
শনিবার সকাল ৯ টার দিকে স্বরজমিনে গিয়ে পুকুর ভরাটের এ চরম অনিয়মের দৃশ্য দেখা যায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মনিরামপুর উপজেলার ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ডের ব্রাক্ষণডাঙ্গা গ্রামে চলতি মৌসুমে ইউনিয়ন পরিষদের সরকারি রাস্তা সংস্কার কর্মসূচির কাজ বরাদ্ধ হয়। সেখানে ব্রাক্ষণডাঙ্গা মোড়ল পাড়া পুরাতন জামে মসজিদ সংলগ্ন সোলিং রাস্তাটি কর্মসূচির সিডিউলে নাম দিয়ে পাশ করানো হয়।

আরো সংবাদ পড়ুন –কৃষকলীগের খুলনা অঞ্চলের সাংগঠনিক কমিটিতে আব্দুর রাশেদ খান

ওই মসজিদ সংলগ্ন রাস্তাটি সোলিংয়ের পাশ থেকে ভেঙ্গে পড়েছে।
যা এলাকার মুসল্লিবৃন্ধসহ জনগনের চলাললে চরম বিঘ্ন ঘটছে। কিন্তু ওই রাস্তাটিতে কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে মাত্র ৩/৪ দিন কোন রকম কাজ করানো হয়েছে বলে এলাকাবাসির বিস্তর অভিযোগ। ওই রাস্তার কাজ বাদ দিয়ে একই গ্রামের মৃত কালাম গাজীর ছেলে রিপন গাজীর ব্যক্তিগত পুকুরে মাটি ফেলে ভরাট করাচ্ছে স্থানীয় শরিফুল ইসলাম ওরফে বাবু নামের এক ব্যক্তি। সে ক্ষমতার দাপটে কোন নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে সংশ্লিষ্ট কিছু অসাধু ব্যক্তিকে ম্যানেজ করে দীর্ঘদিন যাবৎ তার এমন অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে বলে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানায়, আমাদের জানামতে সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে সরকারি রাস্তার কাজ করা যায়। কিন্তু বাবু কিভাবে সরকারি কাজের শ্রমিক দিয়ে কোন ব্যক্তিগত পুকুরে মাটি ভরাট করাচ্ছে। এর কি আসলেই দেখার কেউ নেই। এছাড়া ও তার বিরুদ্ধে এলাকায় নানাধরনের অভিযোগ রয়েছে।
প্রশ্ন উঠেছে,এই ধুরুন্ধর ব্যক্তির খুঁটির জোর কোথায়?
এ বিষয়ে ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের কর্মসূচির সুপারভাইজার সোহাগ হোসেন জানান, আমি বাবুকে কর্মসূচির সিডিউলের রাস্তার কাজের বাইরে অন্য কোন জায়গায় কাজ করতে নিষেধ করেছি। কিন্তু সে কোন কর্নপাত না করে জোরপূর্বক সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে ওই ব্যক্তিগত পুকুরে মাটি ভরাট করাচ্ছে।
৭,৮ ও নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বর কুলসুম বেগম জানান, ব্রাক্ষণডাঙ্গার বাবু আমার কথা ও শোনে না। কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে তার যা ইচ্ছা তাই করে।
এ ব্যাপারে ৪ নং ঢাকুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদ আলী সরদার বলেন,সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে কোন ব্যক্তিগত পুকুর ভরাট করা যাবে না। আমি এখনিই ফোন করছি ।
মনিরাপুর উপজেলা পি,আই,ও অফিস সহকারি সরোয়ার হোসেন জানান,সরকারি কর্মসূচির শ্রমিক দিয়ে কোন ব্যক্তিগত কাজ করা যাবে না। আমি বাবুকে ফোন করছি।