999 নম্বরে কল,সমুদ্রে ডুবন্ত লাইটারেজ জাহাজ এর ১২ নাবিককে উদ্ধার করল বাংলাদেশ বিমান বাহিনী।

ইডিটর ডেস্কঃ জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ঘুর্ণিঝড় ইয়াস কবলে পড়ে বঙ্গোপসাগরে ডুবন্ত নৌযানের এক নাবিকের ফোন কলে ডুবন্ত জাহাজের ১২ জন নাবিককে দুটি রেস্কিউ হেলিকপ্টারের সাহায্যে উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী।

৯৯৯ নম্বরে করিম নামে পাথর বাহী একটি লাইটার জাহাজের ক্রু বঙ্গোপসাগরের ভাসানচরের নিকটবর্তী স্থান থেকে ফোন করে জানান তারা উত্তাল সাগরে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কবলে পড়েছেন। তাদের জাহাজটি বিকল হয়ে পড়েছে এবং স্রোতের তোড়ে একপাশে কাত হয়ে ডুবতে শুরু করেছে। কলার জানান তিনি সহ জাহাজে ১২ জন ক্রু রয়েছেন। কলার তাদের উদ্ধার করে জীবন বাঁচানোর জন্য ৯৯৯ এর কাছে কাতর অনুরোধ জানান।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি কোষ্টগার্ড নিয়ন্ত্রণ কক্ষ, নৌবাহিনী নিয়ন্ত্রণ কক্ষ, নোয়াখালী জেলা পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও বিমান বাহিনী নিয়ন্ত্রণ কক্ষে জানিয়ে উদ্ধারের ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানায়।

৯৯৯ থেকে সংবাদ পেয়ে ২৬ মে বুধবার, ২০২১ বেলা সোয়া বারোটায় দুইটি রেস্কিউ হেলিকপ্টার বিমান বাহিনী ঘাঁটি জহুরুল হক, চট্রগ্রাম থেকে রওনা দেয় এবং দুপুর দেড়টায় ডুবন্ত জাহাজটিকে খুঁজে পায়। বিকেল পৌণে পাঁচটায় নাবিকদের উদ্ধার করে বিমান বাহিনী ঘাঁটি জহুরুল হক, চট্রগ্রাম এ নিয়ে আসা হয়।

ডুবন্ত লাইটারেজ জাহাজ এর নাবিকদের বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুইটি এডব্লিউ-১৩৯ সার্চ এন্ড রেসকিউ হেলিকপ্টারের মাধ্যমে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত ১২ জন নাবিককে বিমান বাহিনী ঘাঁটি জহুরুল হক, চট্রগ্রাম এ নিয়ে আসার পর সেখানে তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয় ।