একটি চিঠি : কল্পনা আলম

একটি চিঠি
কল্পনা আলম

জানো…
মৃত্যুর পর ও যেন আমি তোমায় খুঁজব!
যেভাবে এখন তোমাকে খুঁজি!
তোমাকে এত ভালবাসা দেওয়ার পর ও
মনে হয় আরো ভালবাসা দেওয়ার আছে আমার!!
তুমি কি জানো৷??
তোমাকে ছাড়া আমার এক মুহূর্ত ও চলে না!!
আমি মাঝে মাঝে ভাবি,
তোমার আমার একটি সংসার!!
যেখানে আমার গোলাপি রঙের শাড়ির আঁচলে
বেঁধে রাখব আমার সংসারের চাবি!!
তুমি ক্লান্ত শ্রান্ত দেহ নিয়ে ফিরবে ঘরে!
আমি তোমার কপালের ঘাম মুছব
সেই শাড়িটির আঁচলে!!
আর গাঁয়ের কোন এক মেঠোপথ ধরে
দুজনে পাশাপাশি হাত ধরে হেঁটে চলছি!
তুমি আমাকে তোমার জীবনের
না বলা কথাগুলো বলে যাচ্ছ………
আর আমি আনমনে হেঁটে যাচ্ছি আর শুনছি!!
তোমার আমার হাতে ধরা আমাদের ছোট্ট মেয়ে
আমাদের দুজনের ভবিষ্যৎ!!
তুমিতো আমায় এমনিতেই পাগল ডাকো!
আমার এই ভাবনাগুলি শুনে হাসছো !!
একদম হাসবে না তুমি!!
আমি তোমাকে কেমন ভালবাসি তা যদি বুঝতে
তাহলে হাসতে পারতে না!!
এত ভালবাসি বলেই প্রলাপ বকি বোধ হয়!
হয়তো ভালবেসে পাগল হব!!
আমি শুধু জানি তুমি আমার হৃদয়ের
এমন এক জায়গায় অবস্থান করছো,
যেখান থেকে প্রতিনিয়ত আমি
তোমার ডাক শুনতে পাই!!
যেখানে প্রতিটি নিঃশ্বাসে ধ্বনিত হয় তোমার নাম!!
যেদিন এই নিঃশ্বাস থেমে যাবে
সেদিন হয়তোবা মুছে যাবে,
হৃদয়ের তরে এই নাম, এর আগে নয়!!!!
বিশ্বাস হয় না বুঝি ?
এই দেখ তোমায় ছুঁয়ে বলছি!!
ভালবাসি! ভালবাসি! ভালবাসি!
আমার এই নিজের জীবনের চেয়ে ও বেশি!!!